বিতর্কের সূত্রপাত মূলত মাঞ্জরেকরের দেওয়া ধারাভাষ্যের কিছু অংশ নিয়ে। ছবি: সংগৃহীত

মুম্বাইকে ‘সমর্থন’ জানিয়ে বিদ্রূপের শিকার ভারতীয় ক্রিকেটার

মুশাহিদ
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ১৪ মে ২০১৯, ১৭:৫৮
আপডেট: ১৪ মে ২০১৯, ১৭:৫৮

(প্রিয়.কম) হায়দরাবাদের রাজীব গান্ধী স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ফাইনালের মধ্য দিয়ে পর্দা নেমেছে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) দ্বাদশ আসরের। ফাইনালের রুদ্ধশ্বাস লড়াইয়ে চেন্নাই সুপার কিংসকে মাত্র ১ রানে হারিয়ে চতুর্থ বারের মতো শিরোপা জিতেছে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স।

শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচের দিন আইপিএলের সম্প্রচারকারী চ্যানেলের ধারাভাষ্যকার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন ভারতের সাবেক ক্রিকেটার সঞ্জয় মাঞ্জরেকর। কিন্তু ম্যাচ চলাকালীন মাঞ্জরেকরের দেওয়া ধারাভাষ্য নিয়ে ইতোমধ্যেই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে শুরু হয়েছে তীব্র সমালোচনা। এ জন্য ভক্ত-সমর্থক থেকে শুরু করে ক্রিকেটপ্রেমীদের বিদ্রূপের মুখেও পড়তে হয়েছে সাবেক এই ভারতীয় ব্যাটসম্যানকে।

বিতর্কের সূত্রপাত মূলত মাঞ্জরেকরের দেওয়া ধারাভাষ্যের কিছু অংশ নিয়ে। ১২ মে হায়দরাবাদের রাজীব গান্ধী স্টেডিয়ামে টস জিতে আগে ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত নেন মুম্বাইয়ের অধিনায়ক রোহিত শর্মা। এদিন ব্যাট হাতে মুম্বাইয়ের ইনিংস উদ্বোধন করেন কুইন্টন ডি কক ও রোহিত শর্মা।

রোহিত-ডি ককের ব্যাটে শুরুটা বেশ ভালোই হয়েছিল মুম্বাইয়ের। কিন্তু কিছুক্ষণ পর শর্ট নির্বাচনে ভুল করতে দেখা যায় ডি কককে। দক্ষিণ আফ্রিকার এই উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যানের ভুলটা দেখার সঙ্গে সঙ্গে ধারাভাষ্যকক্ষ থেকে শুধরানোর চেষ্টা করেন মাঞ্জরেকর।

এ সময় ধারাভাষ্যকক্ষ থেকে মাঞ্জরেকরকে বলতে শোনা যায়, ‘ডোন্ট ডু ইট, ডোন্ট ডু ইট।’ অর্থাৎ এমন শট আর খেলো না। কিন্তু মাঞ্জরেকরের বলা কথাটুকু মুহূর্তের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। চেন্নাইয়ের হারের পর যেন আরও বেশি করে ছড়িয়েছে মাঞ্জরেকরের দেওয়া এই নির্দেশনা।

এরপর থেকেই মাঞ্জরেকরের সমালোচনায় সরব হয়েছেন চেন্নাইয়ের ভক্ত-সমর্থক ও সাধারণ ক্রিকেটপ্রেমীরা। এখানেই শেষ নয়, বিদ্রূপের মুখেও পড়তে হয়েছে তাকে। এ ছাড়া ধারাভাষ্যকক্ষ থেকে ক্রিকেটারকে নির্দেশনা দেওয়ায় তার ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন তুলছেন সমালোচকরা। তাদের অধিকাংশের মুখে কমবেশি একটাই প্রশ্ন, সঞ্জয় ধারাভাষ্যকার নাকি মুম্বাইয়ের কোচ?

প্রিয় খেলা/আজাদ চৌধুরী