কুইক লিঙ্ক : মুজিব বর্ষ | করোনা ম্যাপ | করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব

করোনা সতর্কতা : হোটেলে থাকা কতটা নিরাপদ?

জাগো নিউজ ২৪ প্রকাশিত: ৩০ জুন ২০২০, ১৫:১৪

করোনাভাইরাসের কারণে জনজীবন অনেকটাই বিপর্যস্ত। তবু লড়াই করে চলেছে মানুষ। ধীরে ধীরে ফিরতে শুরু করেছে স্বাভাবিক জীবনযাত্রায়। তবে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ কমেনি এখনও। বরং বিস্তারলাভ করেই চলেছে। এমন পরিস্থিতিতে বাড়িতে থাকা সবচেয়ে নিরাপদ, এমনটা জানি আমরা সবাই। তবু প্রয়োজনে বাড়ির বাইরে বের হতেই হয়। যদি প্রয়োজনে হোটেলে উঠতে হয় তবে তা আপনার জন্য কতটা নিরাপদ? এই সময়ে হোটেলে থাকাটা খুব বেশি নিরাপদ নয়, এ কথা সবাই জানেন। কারণ সর্বজনীন জায়গা থেকে করোনা ভাইরাসে সংক্রামিত হওয়ার সম্ভাবনা বেশি।

তবুও যদি আপনাকে বাধ্য হয়ে থাকতেই হয় তবে কিছু জিনিস অবশ্যই মাথায় রাখতে হবে। বোল্ডস্কাই জানাচ্ছে এই সময়ে হোটেলে থাকলে যেসব নিয়ম মানা জরুরি- এইরকম হোটেলে রুম বুক করুন এই কঠিন পরিস্থিতিতে সেই হোটেলেই রুম বুক করার চেষ্টা করুন, যেখানে আপনি আগে থেকেছেন। কারণ, এই হোটেলের পরিবেশ সম্পর্কে আপনি আগে থেকেই সচেতন। সেখানকার স্টাফরাও আপনার পরিচিত, যার ফলে আপনি অনেক সাহায্য পাবেন। হোটেলে রুম বুকিংয়ের আগে দেখে নিনহোটেলে রুম বুকিংয়ের আগে দেখে নিন যে, সেখানে করোনা থেকে নিরাপদ থাকার জন্য প্রয়োজনীয় নিয়মগুলো অনুসরণ করা হচ্ছে কিনা। যে হোটেলে সম্পূর্ণ সুরক্ষা ব্যবস্থা রয়েছে সেখানে রুম বুক করুন।

মাস্ক এবং গ্লাভস ব্যবহার করুন হোটেলে সবসময় মাস্ক এবং গ্লাভস ব্যবহার করুন। এগুলো ব্যবহারের ফলে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ থেকে কিছুটা হলেও সুরক্ষিত থাকবেন। নিজের কাছে অনেকগুলো মাস্ক এবং গ্লাভস রাখুন। প্রয়োজন হলে গ্লাভস পরিবর্তন করুন। ব্যবহৃত গ্লাভসগুলো কিছুক্ষণ গরম পানিতে ভিজিয়ে রেখে তারপর ধুয়ে নিন। রুম স্যানিটাইজ করিয়ে নিন হোটেল স্টাফদের বলে রুমে প্রবেশ করার আগে রুমটি পুরোপুরি স্যানিটাইজ করিয়ে নিন। এটি আপনাকে সুরক্ষিত থাকতে সাহায্য করবে।

বাড়ি থেকে বিছানার চাদর নিয়ে যান এই সময় হোটেলের বিছানার চাদর ব্যবহার করবেন না। বাড়ি থেকে বিছানার চাদর নিয়ে যান। করোনার হাত থেকে সুরক্ষিত থাকার জন্য ছোট ছোট বিষয়গুলোর প্রতি খেয়াল রাখা দরকার। হোটেলের ক্যান্টিনে খাবেন না নিজের রুমে বসেই খাবার খান। হোটেলের ক্যান্টিনে বসে খাওয়া এই মুহুর্তে নিরাপদ নয়। কারণ সেখানে আরও অনেক লোক সমাগম হতে পারে।

সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন

প্রতিদিন ৩৫০০+ সংবাদ পড়ুন প্রিয়-তে

আরও