বাম থেকে আইপের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) জাকারিয়া স্বপন, নেদারল্যান্ডের রানি ম্যাক্সিমা জরিগুয়েতা সেরুতি ও ইউনিলিভার বাংলাদেশের সিইও কেদার লেলে।

তৃণমূলে ব্যাংকিং সেবায় ‘প্রিয় ব্যাংক’র উদ্যোগের প্রশংসা রানি ম্যাক্সিমার

রাকিবুল হাসান
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১১ জুলাই ২০১৯, ১৮:৫৮
আপডেট: ১১ জুলাই ২০১৯, ১৮:৫৮

(প্রিয়.কম) মাহমুদা আখতার চম্পা, পেশায় একজন দরজি। রাজধানী ঢাকার বনশ্রীর একটি বস্তিতে তার বাস। কষ্টের উপার্জিত টাকা ব্যাংকে জমান তিনি। গ্রামে থাকা অবস্থায় অগ্রণী ব্যাংকে অ্যাকাউন্ট খুলেছিলেন চম্পা। বর্তমানে তিনি যেখানে থাকেন, সেই স্থান থেকে ব্যাংকটির শাখা বেশ দূরে। হেঁটে যেতে সময় লাগে প্রায় এক ঘণ্টা, আর রিকশায় গেলে লাগে ১০০ টাকা। ফলে বাড়তি টাকা খরচ করেই ব্যাংকে যেয়ে টাকা জমা দিয়ে আসতে হতো তাকে।

এখন আইপের মাধ্যমে সহজেই টাকা তুলতে ও জমা রাখতে পারছেন। সম্প্রতি ‘প্রিয় ব্যাংক’ নামে পাইলট প্রকল্প চালু করেছে আইপে। আর চম্পা কেবল ফিঙ্গারপ্রিন্টের মাধ্যমে এই সেবা নিতে পারছেন।

১০ জুলাই, বুধবার বনশ্রীতে অবস্থিত আইপের পাইলট প্রকল্প পরিদর্শনকালে চম্পার গল্প শোনেন নেদারল্যান্ডের রানি ও জাতিসংঘ মহাসচিব এন্তোনিও গুতেরেজের ইনক্লুসিভ ফাইনান্স ফর ডেভেলপমেন্ট-বিষয়ক বিশেষ পরামর্শক ম্যাক্সিমা জরিগুয়েতা সেরুতি।

রানি ম্যাক্সিমার সঙ্গে আইপে ও ইউনিলিভারের কর্মকর্তারা। ছবি: প্রিয়.কম

এ সময় সেখানে প্রিয় ব্যাংকের উদ্যোক্তারা উপস্থিত ছিলেন।

ম্যাক্সিমা প্রিয় ব্যাংকের এমন উদ্যোগকে স্বাগত জানান এবং এর অন্যতম উদ্যোক্তা জাকারিয়া স্বপনকে ধন্যবাদ জানান।

এই উদ্যোগের প্রশংসা করে ম্যাক্সিমা বলেন, প্রিয় ব্যাংকের এই প্রয়াস নিম্ন আয়ের মানুষের জীবনযাত্রাকে আরও উন্নত পর্যায়ে নিয়ে যাবে।

বিশ্বব্যাপী অন্তর্ভুক্তিমূলক অর্থনৈতিক ব্যবস্থা জোরদার, দারিদ্র্য নিরসন, খাদ্য নিরাপত্তা ও শিক্ষার মতো উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে ডাচ রানি জনসচেনতা সৃষ্টিতে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করছেন। রানি ম্যাক্সিমা গত ৯ জুলাই তিন দিনের সফরে বাংলাদেশ এসেছেন।

প্রযুক্তি ও এজেন্ট ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে দেশের যেকোনো অঞ্চলের মানুষদের তাৎক্ষণিক ব্যাংকিং সেবা দেবে প্রিয় ব্যাংক। এজেন্ট ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষ বা যাদের আশেপাশে কোনো ব্যাংক নেই, তারা খুব সহজেই প্রিয় ব্যাংক অ্যাকাউন্ট খুলতে পারবেন এবং ব্যাংকের শাখায় না গিয়েও অ্যাকাউন্টে প্রবেশ করে অর্থ লেনদেন করতে পারবে। তিনটি উদ্ভাবনী সেবা কাজ করছে আর্থিক এ প্রতিষ্ঠানটি। এক. দুটি ব্যাংকের মধ্যে তাৎক্ষণিক লেনদেনের সুবিধা; দুই. ইউনিলিভারের সঙ্গে যৌথভাবে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে এজেন্ট ব্যাংকিং সেবা পৌঁছে দেওয়া এবং তিন. খুব সহজে একাউন্ট খুলে আর্থিক লেনদেন ও বিভিন্ন সেবা নিশ্চিত করা। 

প্রিয় প্রযুক্তি/রিমন

আরো পড়ুন