অতিথিদের সঙ্গে পুরস্কারপ্রাপ্তরা। ছবি: সংগৃহীত

অভিবাসন-বিষয়ক সেরা প্রতিবেদন প্রিয়.কমের

আমিনুল ইসলাম মল্লিক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ২১ মে ২০১৯, ২১:৩৮
আপডেট: ২১ মে ২০১৯, ২১:৩৮

(প্রিয়.কম) অভিবাসীদের অধিকার সুরক্ষা ও জনসচেতনতা তৈরি এবং বিদেশ ফেরত অভিবাসীদের কল্যাণে কাজ করছে বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা ব্র্যাক। অভিবাসন খাত নিয়ে অনুসন্ধানী ও বস্তুনিষ্ঠ সাংবাদিকতার জন্য ‘অভিবাসন মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড ২০১৮’ ঘোষণা করেছে সংস্থাটি। সাত ক্যাটাগরিতে এই পুরস্কার পেয়েছেন ১৩ সাংবাদিক। আর অনলাইন ক্যাটাগরিতে প্রথম পুরস্কার পেয়েছে প্রিয়.কমের প্রতিবেদন।

২১ মে, মঙ্গলবার রাজধানীর ব্র্যাক সেন্টারে এক অনুষ্ঠানে বিজয়ী সাংবাদিকদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম। ২০১৫ সাল থেকে নিয়মিত এই পুরস্কার দিচ্ছে ব্র্যাক।

২০১৮ সালে অনলাইন, জাতীয় সংবাদপত্র, আঞ্চলিক সংবাদপত্র, টেলিভিশন (সংবাদ), টেলিভিশন (অনুষ্ঠান), রেডিও ও ব্লগ বা মতামত ক্যাটাগরিতে পুরস্কার দেওয়া হয়েছে।

অনলাইন ক্যাটাগরিতে প্রিয়.কমের (বর্তমান কর্মস্থল দৈনিক সময়ের আলো) মোস্তফা ইমরুল কায়েসের করা প্রতিবেদন প্রথম, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের (বর্তমান কর্মস্থল ঢাকা ট্রিবিউন) আব্দুল্লাহ আল হোসাইনের প্রতিবেদন দ্বিতীয় ও বাংলা ট্রিবিউনের সাদ্দিক সোহরাবের প্রতিবেদন তৃতীয় পুরস্কার পেয়েছে। জাতীয় সাংবাদপত্র ক্যাটাগরিতে নিউএজের মুহাম্মদ ওয়াসিম উদ্দিন ভুঁইয়ার প্রতিবেদন প্রথম, ডেইলি স্টারের পরিমল পালমার প্রতিবেদন দ্বিতীয়, দ্য ফিনান্সিয়াল এক্সপ্রেসের আরাফাত আরার প্রতিবেদন তৃতীয়; টেলিভিশন ক্যাটাগরিতে ইন্ডিপেডেন্ট টিভির মেজবাহুল ইসলামের প্রতিবেদন প্রথম, বাংলাভিশনের মেরাজ হোসেন গাজীর প্রতিবেদন দ্বিতীয়, চ্যানেল টোয়েন্টিফোরের হাসিব হাসানের প্রতিবেদন তৃতীয় পুরস্কার পেয়েছে। আঞ্চলিক সংবাদপত্র ও রেডিও ক্যাটাগরিতে একটি করে পুরস্কার জিতেছে যথাক্রমে সিলেটের দৈনিক জালালাবাদ’র শাহী চৌধুরীর প্রতিবেদন ও বাংলাদেশ বেতারের উপ-আঞ্চলিক পরিচালক মো. মোস্তাফিজুর রহমানের প্রতিবেদন। এ ছাড়া ব্লগ/অভিমত ক্যাটাগরিতে এটিএন বাংলার পরিচালক (বিতর্ক) হাসান আহমেদ কিরণ ও টেলিভিশনের অনুষ্ঠান ক্যাটাগরিতে ইন্ডিপেডেন্ট টিভির তালাশ অনুষ্ঠানের মো. বনি আমিন পুরস্কার পেয়েছেন।

২০১৮ সালের ১৭ সেপ্টেম্বর ‘নির্যাতিত সৌদি ফেরত নারীর সংখ্যা বাড়ছেই’ শিরোনামে প্রতিবেদন প্রকাশ করে প্রিয়.কম। সেই প্রতিবেদনটি অনলাইন ক্যাটাগরিতে প্রথম পুরস্কার পায়।

চতুর্থবারের মতো ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের অর্থায়নে ও আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থার (আইওএম) সঙ্গে যৌথভাবে পরিচালিত বাংলাদেশ সাইটেইনেবল রিইন্টিগ্রেশন ইমপ্রুভড মাইগ্রেশন গভর্নেন্স-প্রত্যাশা প্রকল্পের আওতায় এ বছর অনুষ্ঠানের আয়োজন করে ব্র্যাক মাইগ্রেশন প্রোগ্রাম।

পুরস্কার নিচ্ছেন মোস্তফা ইমরুল কায়েস, যার বর্তমান কর্মস্থল দৈনিক সময়ের আলো। ছবি: সংগৃহীত

অভিবাসন খাতে গণমাধ্যমের ভূমিকা বিষয়ে অনুষ্ঠানে মূল বক্তব্য রাখেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক। এ ছাড়াও অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ডেলিগেশন অব ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন (ইইউ) টু বাংলাদেশ’র কো অর্ডিরেশন প্রধান (ভারপ্রাপ্ত) ডুয়্যর্ট বোস, আন্তর্জাতিক সংস্থার (আইওএম) বাংলাদেশ মিশনের প্রধান গিওরগি গিগারিও প্রমুখ।

অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন ব্র্যাকের ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী পরিচালক আসিফ সালেহ এবং অভিবাসন খাতের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে বিশেষ উপাস্থাপনা করেন মাইগ্রেশন প্রোগ্রামের প্রধান শরিফুল হাসান।

আরো পড়ুন