আড়াইহাজারে হাত পা বেঁধে শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টা

মানবজমিন প্রকাশিত: ২০১৯-০৬-২৭ ০০:০০:০০

আড়াইহাজারে স্থানীয় বিশ্বনন্দীর বালুয়াকান্দি এলাকায় হাত ও পা বেঁধে এগারো বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টা করা হয়েছে। এ সময় স্থানীয় এক ব্যক্তির হস্তক্ষেপে রক্ষা পেয়েছে শিশুটি। এ সময় তার নাকে ও মুখে আঘাত করে তাকে রক্তাক্ত জখম করা হয়েছে। এ ঘটনায় মঙ্গলবার রাতে শিশুটির বাবা বাদী হয়ে রায়হান (১৬) নামে এক কিশোরকে অভিযুক্ত করে একটি মামলা করেছেন। এর আগে সন্ধ্যায় অভিযান চালিয়ে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করেছে। সে ওই এলাকার জসিম উদ্দিনের ছেলে। গতকাল তাকে নারায়ণগঞ্জের আদালতে পাঠানো হয়েছে। শিশুর বাবা জানান, ২৩ শে জুন সকাল ৯টার দিকে তার মেয়ে স্থানীয় গাজীপুরা এলাকায় দাদির বাড়ি থেকে ফিরছিল। বালুয়াকান্দি নিজের বাড়ির কিছু অদূরে বখাটে রায়হান তাকে গতিরোধ করে মুখ চেপে ধরে টেনে হিঁচড়ে একটি ধৈইঞ্চা ক্ষেতে নিয়ে যায়। যাতে সে চিৎকার করতে না পারে তার মুখের ভেতরে কাপড় এঁটে দেয় এবং তার পরনের ওড়না দিয়ে গলায় পেঁচানো হয়। পরে ধৈইঞ্চা দিয়ে তার হাত ও পা বেঁধে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। এ সময় মুক্ত হওয়ার চেষ্টা করা হলে তার নাকে ও মুখে উপর্যুপরি আঘাত করে তাকে রক্তাক্ত জখম করা হয়েছে। তিনি আরও জানান, পাশের একটি টেক্সটাইল মিলের শ্রমিক বিষয়টি আঁচ করতে পেরে ক্ষেতে গিয়ে বখাটেকে ধরে ফেলেন। পরে এনিয়ে স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিরা বিচার-সালিশ করেন। ৪০ হাজার টাকা জরিমানার ঘোষণা দিয়ে তা মীমাংসার চেষ্টা চালিয়ে ব্যর্থ হয়। খবর পেয়ে পুলিশ রায়হানকে আটক করে। আড়াইহাজার থানার ওসি নজরুল ইসলাম বলেন, এ ঘটনায় শিশুর বাবা বাদী হয়ে একটি মামলা করেছেন। তিনি বলেন, সমাজে নারী ও শিশু নির্যাতনকারীদের কোনো ছাড় নেই। এরই মধ্যে অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন