রাতে আটক, ভোরে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ১৮ মামলার আসামি

মানবজমিন প্রকাশিত: ২০১৯-০৭-২২ ১২:১৪:০০

জামালপুরের বকশীগঞ্জে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ শিপন (৩২) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। পুলিশ বলছে, তার বিরুদ্ধে ১৮টি মামলা রয়েছে। আজ সোমবার ভোরে ভারতীয় সীমান্ত এলাকা উপজেলার ডুমুর তলা নামক স্থানে এ ‘বন্দুকযুদ্ধ’ হয়। শিপন শেরপুর সদর উপজেলার মুন্সীরচর এলাকায় জালাল উদ্দিনের ছেলে।এর আগে গত রোববার রাতে নৌ ডাকাতির সময় স্থানীয় জনতার হাতে ধরা পড়ে শিপন। পরে তাকে বকশীগঞ্জ থানায় সোর্পদ করা হয়। বকশীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ কে এম মাহাবুবুল আলম জানান, দিনভর জিজ্ঞাসাবাদ শেষে মাদক ও অস্ত্র উদ্ধারের জন্য শিপনকে নিয়ে প্রথমে সারমারা ও রামরামপুর যায় পুলিশ। ভোরের দিকে শিপনকে নিয়ে বকশীগঞ্জের কামালপুর ইউনিয়নের ডুমুরতলা নামক স্থানে আসার সঙ্গে-সঙ্গে তার সহযোগিরা পুলিশের ওপর হামলা চালায়। পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। সন্ত্রাসীদের হামলায় ৪ পুলিশ সদস্য মারাত্মকভাবে আহত হন। আহতরা হলেন, পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) আজিজুর রহমান, এসআই রাজু আহাম্মেদ, কনস্টেবল নকরেট ও কং মিজানুর রহমান। ঘটনাস্থল থেকে ১টি পাইপগান, একটি মোটরসাইকেল ও ৩০০পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। এ সময় পালানোর চেষ্টাকালে গুলিবিদ্ধ হয় শিপন। পরে তাকে বকশীগঞ্জ সদর হাসপাতালে আনলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করে। এ বিষয়ে জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) দেলোয়ার হোসেন আজ সোমবার দুপুরে সংবাদ সম্মেলন করবেন বলেও জানান ওসি।

সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন

সংবাদ প্রবাহ

আরও