সরিয়ে নেয়া হয়েছে প্রায় ৮০ হাজার মানুষ

মানবজমিন প্রকাশিত: ২০১৯-০৭-১৩ ০০:০০:০০

চীনের দক্ষিণ ও পূর্বাঞ্চলে গত অর্ধ-শতকের ইতিহাসে রেকর্ড পরিমাণ ভারি বর্ষণে সৃষ্ট বন্যায় ভেসে গেছে অগণিত বাড়িঘর। সরিয়ে নেয়া হয়েছে প্রায় ৮০ হাজার মানুষ। ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে কয়েক হাজার একরের শস্য। রাষ্ট্র পরিচালিত গণমাধ্যমের বরাত দিয়ে এ খবর দিয়েছে চ্যানেল নিউজ এশিয়া। খবরে বলা হয়, আসন্ন দিনগুলোয় আরো ভারি বর্ষণের আশঙ্কা করা হচ্ছে। ইতিমধ্যে ১৯৬১ সাল থেকে বর্তমান পর্যন্ত বিগত বছরগুলোর তুলনায় ৫১ শতাংশ বৃষ্টি হয়েহে দক্ষিণ ও পূর্বাঞ্চলে। রাষ্ট্র পরিচালিত টিভি চ্যানেলে প্রচারিত ফুটেজে দেখা গেছে, অর্ধ-নিমজ্জিত হয়ে আছে বন্যাক্রান্ত অঞ্চলের বেশিরভাগ বাড়িঘর। বাতিল করে দেয়া হয়েছে বহু ট্রেন ও পরিবহন সেবা। চীনের জরুরি ব্যবস্থা বিষয়ক মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, সামপ্রতিক এই বর্ষণ ও বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ১ লাখ ২৬ হাজার ১০০ একরেরও বেশি কৃষি জমি, যার আর্থিক মূল্য প্রায় ৪০ কোটি ডলার। এ ছাড়া সরিয়ে নেয়া হয়েছে ৭৭ হাজারের বেশি মানুষকে। সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত এলাকাগুলোর মধ্যে রয়েছে, দক্ষিণাঞ্চলীয় হুনান ও জিয়ানশি প্রদেশ, পূর্বাঞ্চলীয় ঝেনজিয়াং প্রদেশ, দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় ফুজিয়ান প্রদেশ ও দক্ষিণপশ্চিমাঞ্চলীয় গুয়াংশি অঞ্চলের উত্তরাংশ। শুক্রবার ও শনিবার নতুন করে ভারি বর্ষণ হলে, মধ্যাঞ্চলীয় হুবেই প্রদেশ, পূর্বাঞ্চলীয় আনহুই ও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় গুঝিহৌ প্রদেশ আক্রান্ত হবে বলে আশঙ্কা করছেন আবহাওয়া বিষয়ক কর্মকর্তারা। তারা আশঙ্কা করছেন, নতুন বৃষ্টিতে ফুলে ওঠবে জিয়াংশি প্রদেশের ইয়াংজি নদী। এতে নতুন করে বন্যা হতে পারে। প্রসঙ্গত, সামপ্রতিক বছরগুলোতে চীনের আবহাওয়া চরম আকার ধারণ করছে। কিছু কিছু অঞ্চলে তাপমাত্রা অতীতের সকল রেকর্ড ছাড়িয়ে গেছে। আবহাওয়া কর্মকর্তারা সতর্ক করেছেন যে, দক্ষিণাঞ্চলে গড় বৃষ্টিপাতের পরিমাণ এই মৌসুমে ৩০ থেকে ৭০ শতাংশ বাড়তে পারে আগের বছরগুলোর তুলনায়।

সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন