কুইক লিঙ্ক : মুজিব বর্ষ | করোনা ম্যাপ | করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব

আমরা প্রাসাদ ষড়যন্ত্রের শিকার : বিদিশা

দৈনিক আজাদী প্রকাশিত: ০৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৫:৫৬

.tdi_2_6cb.td-a-rec-img{text-align:left}.tdi_2_6cb.td-a-rec-img img{margin:0 auto 0 0} (adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});রংপুরে হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের কবরে শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন তার সাবেক স্ত্রী বিদিশা সিদ্দিক ও তার সন্তান এরিক এরশাদ। গতকাল সোমবার বেলা আড়াইটার দিকে এরিক তার মা বিদিশা সিদ্দিককে সঙ্গে নিয়ে এরশাদের কবরে শ্রদ্ধা জানান। এর কয়েক ঘণ্টা আগে ‘১৪ বছর পর’ ছেলেকে নিয়ে রংপুরে আসেন বিদিশা। সকালে ঢাকা থেকে বিমানে সৈয়দপুর বিমানবন্দরে পৌঁছান। সেখান থেকে সিলভার রঙের একটি কারে পল্লী নিবাসে এসে নামেন তারা। বেলা ১২টার দিকে রংপুর নগরীর দর্শনাস্থ পল্লী নিবাসে প্রবেশ করে নিচ তলায় রাখা এরশাদের ছবিতে চুমু দিয়ে এরিককে কাঁদতে দেখা যায়। সে সময় সাদা রঙের জামদানি শাড়ি পরিহিত বিদিশা তার সন্তানকে সান্ত্বনা দিতে থাকেন। বিকালে রংপুরের পল্লী নিবাসে সাংবাদিকদের সাথে কথা বলেন বিদিশা। খবর বিডিনিউজের। নিজেকে প্রাসাদ ষড়যন্ত্রের শিকার উল্লেখ করে বিদিশা বলেন, তাদের জন্য আমরা সংসার করতে পারিনি। আজও সেই গ্রুপটি সক্রিয় আছে। তারা এরিকের ভালো চায় না। ১৪ বছর পর রংপুরে আসার কথা জানিয়ে তিনি বলেন, যেদিন এরশাদ সাহেবের সাথে এরিককে নিয়ে রংপুরের মাটিতে পা রাখি, রাস্তার দু’পাশে ফুলে ফুলে মানুষ আমাকে বরণ করে নিয়েছিলেন। সুখের সংসার ছিল আমাদের এই সন্তানকে নিয়ে। কিন্তু সেটি সহ্য হয়নি অনেকের। কারণ এটি রাজনৈতিক পরিবার ছিল। আমরা প্রাসাদ রাজনীতির শিকার। রাজনীতিতে ফিরতে দেশ সফরের কর্মসূচির পরিকল্পনা রয়েছে জানিয়ে বিদিশা বলেন, রাজনীতি করতে অনেক সাহসের প্রয়োজন। আমি বিদিশা আমার হাতে পয়সা নেই, তবে আমার সাহস আছে। আমার সাহস আমার সন্তান। এরিকের সম্পত্তি বেদখলের প্রসঙ্গ টেনে এরশাদের সাবেক স্ত্রী বলেন, এরিকের ট্রাস্টে কত সম্পদ আছে তা সবাই জানে। কিন্তু এরিকের কোনো কিছুই এখন এরিকের কাছে নেই, সব দখল হয়ে গেছে। সবাই দখলের জন্য ব্যস্ত, কেউ এই প্রতিবন্ধী বাচ্চার জন্য চিন্তা করে না। এর আগে এরশাদের কবরে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে সাংবাদিকদের এরিক বলেন, আমার অনেক আগেই আসার কথা ছিল কিন্তু অনেক বাধার কারণে আসতে পারিনি। ফোন করে আমাকে অনেক হুমকি দেওয়া হয়েছিল, যেন আমি রংপুরে না আসি। রংপুরের মানুষ আমার আব্বার পাশে ছিলেন। তারা আমার পাশেও থাকবেন।.tdi_3_68c.td-a-rec-img{text-align:left}.tdi_3_68c.td-a-rec-img img{margin:0 auto 0 0} (adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন

প্রতিদিন ৩৫০০+ সংবাদ পড়ুন প্রিয়-তে

এই সম্পর্কিত

আরও