কুইক লিঙ্ক : মুজিব বর্ষ | করোনা ম্যাপ | করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব

নাগরিকত্ব সনদও ইস্যু করতে পারবেন চসিকের ৩ কর্মকর্তা

দৈনিক আজাদী চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন প্রকাশিত: ১৮ আগস্ট ২০২০, ০৬:৫১

.tdi_2_363.td-a-rec-img{text-align:left}.tdi_2_363.td-a-rec-img img{margin:0 auto 0 0} (adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ কাজে প্রয়োজন হয় জাতীয়তা সনদপত্র বা নাগরিকত্ব সনদ। নগরে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের (চসিক) ওয়ার্ড কার্যালয় থেকে এ সনদ সংগ্রহ করেন নগরবাসী। তবে গত ১২ দিন ধরে গুরুত্বপূর্ণ সনদটি ইস্যু করা হচ্ছিল না। এতে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন সনদ প্রত্যাশীরা। জাতীয়তা সনদপত্র ইস্যু না কারণ হিসেবে জানা গেছে, আগে কাউন্সিলরগণ জাতীয়তা সনদে স্বাক্ষর করতেন। কিন্তু মেয়াদ শেষ হওয়ায় গত ৬ আগস্ট থেকে নির্বাচিত কাউন্সিলরগণ দায়িত্বে নেই চসিকে। অবশ্য নির্বাচিত কাউন্সিলরগণ দায়িত্ব গ্রহণ না করা পর্যন্ত সংস্থাটির তিন কর্মকর্তাকে ৪১ ওয়ার্ডের দায়িত্বে দেয়া হয়। তবে তাদের জন্ম ও মৃত্যু সনদ ইস্যুর ক্ষমতা দেয়া হলেও জাতীয়তা বা নাগরিকত্ব সনদ ইস্যুর ক্ষমতা দেয়া হয়নি। এদিকে জন্ম ও মৃত্যু সনদ প্রদানের ক্ষমতা থাকলেও ওই তিন কর্মকর্তা সপ্তাহে মাত্র দুইদিন করে এসব সনদ ইস্যু করছেন। মূল দায়িত্বের ব্যস্ততার জন্যই সনদ ইস্যুর দিন কমিয়ে আনা হয়েছে। এতেও ভোগান্তি বাড়ছে নাগরিকদের। কারণ, সনদ প্রত্যাশীরা চাইলে সাথে সাথেই কাঙ্ক্ষিত সনদ পাচ্ছেন না। এছাড়া ৪১ ওয়ার্ডে ৪১ জন কাউন্সিলর সনদ প্রদান করতেই হিমশিম খেতেন। সেখানে বিপুল জনগোষ্ঠির চাহিদা মাত্র তিনজন কর্মকর্তা কিভাবে পূরণ করবেন সেটা নিয়েও আছে নানা প্রশ্ন। এ বিষয়ে চসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সামসুদ্দোহা দৈনিক আজাদীকে বলেন, আজকে (গতকাল) আমরা মন্ত্রণালয় থেকে নির্দেশনা পেয়েছি। এতে বলা হয়েছে ওয়ারিশান সনদ, নাগরিকত্ব সনদ, জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন সনদ ইস্যুকরণে অঞ্চলভিত্তিক একাধিক কর্মকর্তাকে নিয়োগ দেয়া যাবে। ওই আলোকে আমরা ইতোপূর্বে তিনজন কর্মকর্তাকে দায়িত্ব দিয়ে যে অফিস আদেশ জারি করেছিলাম সেখানে নাগরিকত্ব সনদ প্রদানের বিষয়টিও যুক্ত করে পুনরায় করবো। ফলে তিন কর্মকর্তা নাগরিকত্ব সনদপত্র ইস্যু করতে পারবেন। আজ (মঙ্গলবার) নতুন করে অফিস আদেশটি জারি করা হবে বলেও জানান তিনি। চসিক সূত্রে জানা গেছে, গত ১৩ আগস্ট এক অফিস আদেশে নগরের ৪১ ওয়ার্ডের দায়িত্ব দেয়া হয় তিন কর্মকর্তাকে। এরমধ্যে প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা মুফিদুল আলম নগরীর এক থেকে ১৪ নম্বর ওয়ার্ড, প্রধান শিক্ষা কর্মকর্তা সুমন বড়ুয়া ১৫ নম্বর থেকে ২৮ নম্বর ওয়ার্ড এবং সচিব আবু শাহেদ চৌধুরী ২৯ নম্বর থেকে ৪১ নম্বর ওয়ার্ডের কার্যক্রম দেখভালের দায়িত্ব পেয়েছেন। অফিস আদেশে বলা হয়েছে, নির্বাচিত কাউন্সিলর দায়িত্ব গ্রহণ না করা পর্যন্ত ওয়ার্ডের পরিচ্ছন্নতা, ভৌত অবকাঠামো উন্নয়নসহ যাবতীয় তদারকি এবং সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডের বাসিন্দাদের জন্ম ও মৃত্যুসনদ প্রদানের জন্য তিন কর্মকর্তাকে দায়িত্ব প্রদান করা হয়েছে। এদিকে নাগরিকত্ব সনদ ইস্যু না করার বিষযটি নিশ্চিত করেন দায়িত্বপ্রাপ্ত তিন কর্মকর্তা। সুমন বড়ুয়া দৈনিক আজাদীকে বলেন, জন্মসনদ নিয়মিত ইস্যু করছি। নাগরিক সনদ দেয়ার বিষয়ে কোন অর্ডার ছিল না। তাই আপাতত তা দিচ্ছি না। তবে আজ (গতকাল) মন্ত্রণালয় থেকে নির্দেশনা এসেছে বলে জেনেছি। এ কর্মকর্তা বলেন, ওয়ার্ড সচিবদের সাথে বৈঠক করে একটা গাইডলাইন দিয়েছি। তাদের বলে দিয়েছি, কোন অবস্থাতেই কাউকে হয়রানি করা যাবে না। সপ্তাহে দুইদিন তথা সোম ও বুধবার সনদগুলোতে স্বাক্ষর করার জন্য নির্ধারণ করেছি। বাকিরাও দুইদিন করে নির্ধারণ করেছেন। তবে এমন না যে, এই দুইদিনের বাইরে স্বাক্ষর করবো না। ওই দিনগুলোর বাইরেও যে কোন দিন যে কোন সময় প্রয়োজন হলে সনদ ইস্যু করা হবে। তাছাড়া ওয়ার্ডে ভিজিটে গেলেও স্বাক্ষর করবো। ফলে দুইদিন নির্ধারণ করলেও নাগরিকদের ভোগান্তি হবে না। আবু শাহেদ চৌধুরী দৈনিক আজাদীকে বলেন, ১৩ আগস্ট দায়িত্ব পেয়েছি। এরপর ওয়ার্ড সচিবদের সঙ্গে বৈঠক করে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দিয়েছি। যেখানে আইনগত বাধা আছে সেগুলো ছাড়া বাকি সব কাজ করছি। জন্মসনদের সংখ্যা বেশি। গতকাল প্রায় ৩০ থেকে ৩৫টি জন্মসনদ দিয়েছেন বলেও জানান তিনি। মুফিদুল আলম দৈনিক আজাদীকে বলেন, ‘নাগরিক সনদ দেয়ার বিষয়ে এতদিন নির্দেশনা ছিল না। আজ (গতকাল) নির্দেশনা এসেছে। কাল (আজ) থেকে দিয়ে দিতে পারবো। নাগরিক সনদ না দিলেও অন্যান্য কার্যক্রম চলমান আছে জানিয়ে তিনি বলেন, জন্মসনদ বেশি দিতে হচ্ছে। গতকাল ৫০ থেকে ৬০ টি জন্ম সনদ দিয়েছেন বলেও জানান তিনি।.tdi_3_c5c.td-a-rec-img{text-align:left}.tdi_3_c5c.td-a-rec-img img{margin:0 auto 0 0} (adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন

প্রতিদিন ৩৫০০+ সংবাদ পড়ুন প্রিয়-তে

এই সম্পর্কিত

আরও