কুইক লিঙ্ক : মুজিব বর্ষ | করোনা ম্যাপ | করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব

ভাদ্র মাসে বন্যার শঙ্কা, প্রস্তুতি নিতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ

মানবজমিন গণভবন প্রকাশিত: ১১ আগস্ট ২০২০, ০০:০০

ভাদ্র মাসের মাঝামাঝি সময়ে আরেকটি বন্যা হলে সেটি দীর্ঘমেয়াদি হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট সবাইকে প্রস্তুতি নিতে নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গতকাল ভার্চুয়াল মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে এ নির্দেশনা দিয়েছেন তিনি। বৈঠক শেষে সচিবালয়ে সংক্ষিপ্ত পরিসরে অনুষ্ঠিত প্রেসব্রিফিংয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম এসব তথ্য জানান। মন্ত্রিপরিষদ সচিব জানান, মন্ত্রিসভার বৈঠকে বন্যা ও পুনর্বাসন কর্মসূচি নিয়ে বেশি আলোচনা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী বিশেষ করে সতর্ক করেছেন, ভাদ্র মাসের মাঝামাঝি যদি কোনো বন্যা আসে তাহলে সেটা কিন্তু লং টাইমে প্রিভেইল (দীর্ঘ মেয়াদে থাকার) করার আশঙ্কা থাকে। সেজন্য প্রধানমন্ত্রী সবাইকে প্রস্তুতি নিতে সতর্ক করেছেন। সচিব জানান, গত কয়েকদিন থেকে পানি নেমে যাচ্ছে। আজকে যমুনা নদীর পানি বঙ্গবন্ধু ব্রিজের কাছে অলরেডি বিপদসীমার বেশ নিচে চলে গেছে। ভারতের আবহাওয়া বিভাগের প্রেডিকশন আছে যে, আগে বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা আছে। সেজন্য প্রধানমন্ত্রী পার্টিকুলারলি এ বিষয়ে সতর্ক করেছেন। সচিব আরো জানান, প্রধানমন্ত্রী রোপা আমনের দিকে বিশেষ নজর রাখতে বলেছেন। রোপা আমন ঠিকভাবে হলে আমাদের খাদ্য ঘাটতি হওয়ার আশঙ্কা থাকবে না। তবে গত বছরের তুলনায় এ বছর উৎপাদন বেশি হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। এবার আমন উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা ৩৬ লাখ টন। গত বছর লক্ষ্যমাত্রা ছিল ২৮ লাখ টন। মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, আমাদের পুনর্বাসন কার্যক্রম, বিশেষ করে ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্টের আন্ডারে কিছু প্রোগ্রাম আছে। ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট ঘরবাড়ি রিহ্যাবিলিটেশন করবে। স্থানীয় সরকার তাদের ক্ষতিগ্রস্ত অবকাঠামো মেরামত করবে, পানি উন্নয়ন বোর্ডকেও সেখানে অন্তর্ভুক্ত করা আছে। সেখানে একটা বড় টাকা ধরা আছে যদি কোথাও নদীর বাঁধ ভেঙে যায় ওটাকে তাড়াতাড়ি মেরামত করার জন্য। সে বিষয়ে বিশেষ জোর দেয়া হয়েছে।

সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন

প্রতিদিন ৩৫০০+ সংবাদ পড়ুন প্রিয়-তে

এই সম্পর্কিত

আরও