কুইক লিঙ্ক : মুজিব বর্ষ | করোনা ম্যাপ | করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব

বাজেটে কৃষি খাতের বরাদ্দ বৃদ্ধির যৌক্তিকতা প্রসঙ্গে

বণিক বার্তা প্রকাশিত: ২৭ জুন ২০২০, ০০:২৫

গত ১১ জুন মহান জাতীয় সংসদে মাননীয় অর্থমন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামাল গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের ৪৯তম জাতীয় বাজেট উপস্থাপন করেছেন। ২০২০-২১ অর্থবছরে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়ন, মুজিব বর্ষ উদযাপন, উন্নত দেশে রূপান্তরিত হওয়া ও করোনা মোকাবেলায় সরকারের ৫ লাখ ৬৮ হাজার কোটি টাকার এ বাজেট ২০১৯-২০ অর্থবছরের সংশোধিত বাজেটের (৫,১০,৫৭৭ কোটি টাকার) চেয়ে ১৩ দশমিক ২ শতাংশ বেশি এবং ওই বছরের প্রস্তাবিত বাজেটের ৫ লাখ ২৩ হাজার ১৯০ কোটি টাকার চেয়ে ৮ দশমিক ৬ শতাংশ বেশি। বাজেটের আয় ১ লাখ ৮৩ হাজার ১৩ কোটি টাকা, যা গত বছরের সংশোধিত বাজেটের (১,৫১,৫২৩ কোটি টাকা) চেয়ে ৮ দশমিক ৭ শতাংশ বেশি। ব্যয় নির্বাহে ঘাটতি ১ লাখ ৯০ হাজার কোটি টাকা, যা গত বছরের ঘাটতি ১ লাখ ৫৩ হাজার ৫০৮ কোটি টাকার চেয়ে ২৩ দশমিক ৮ শতাংশ বেশি। ওই ঘাটতি বৈদেশিক সাহায্য ও অভ্যন্তরীণ ব্যাংকিং খাত থেকে সরকার ধার করে পরিচালনা করবে। বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচিতে সরকারের বরাদ্দ ২ লাখ ৫ হাজার ১৪৫ কোটি টাকা, যা গত বছরের সংশোধিত বাজেটের চেয়ে ৬ দশমিক ৩ শতাংশ বেশি। করোনার কারণে বাজেটে ২০১৯-২০ অর্থবছরের প্রবৃদ্ধি ৫ দশমিক ৪ শতাংশ এবং ২০২০-২১ অর্থবছরে প্রবৃদ্ধি ৮ দশমিক ২ শতাংশ প্রাক্কলন করা হয়েছে। এছাড়া বাজেটে মূল্যস্ফীতি ধরা হয়েছে ৫ দশমিক ৪ শতাংশ। করোনার প্রকোপ না কমলে প্রাক্কলিত প্রবৃদ্ধি অর্জন হওয়া দুষ্কর হবে বলে অর্থনীতিবিদদের ধারণা।

সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন

প্রতিদিন ৩৫০০+ সংবাদ পড়ুন প্রিয়-তে

এই সম্পর্কিত

আরও