কুইক লিঙ্ক : মুজিব বর্ষ | করোনা ম্যাপ | করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব

করোনার ঝুঁকি নির্ণয়, নিয়ন্ত্রণ ও লোকেশন জানতে প্রযুক্তি ব্যবহার

বাংলা ট্রিবিউন প্রকাশিত: ২৪ মে ২০২০, ০২:৪৬

প্রযুক্তি ব্যবহার করে এখন করোনাভাইরাসের ঝুঁকি নির্ণয় ও নিয়ন্ত্রণ করা যাচ্ছে বলে দাবি করেছেন দেশি-বিদেশি প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞরা। এমনকি লোকেশন চিহ্নিত করে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণও সম্ভব বলে জানিয়েছেন দেশের আইসিটি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। তিনি বলেছেন, প্রযুক্তির মাধ্যমেও আমরা করোনা মোকাবিলা করবো। প্রযুক্তি আমাদের তথ্য ও উপাত্ত দিয়ে সহযোগিতা করছে। আমরা সেই মতে ব্যবস্থা নিতে পারছি।দেশে করোনাভাইরাসে সংক্রমিত এলাকা ও সংক্রমিত মানুষের সংখ্যা ইত্যাদি চিহ্নিত করতে ব্যবহার হচ্ছে প্রযুক্তি।

এমনকি দেশে এমন একটি ওয়েবসাইট (corona.gov.bd) রয়েছে, যেখানে লগইন করে কিছু প্রশ্নের উত্তর দিয়ে জেনে নেওয়া যাবে আপনি কতটা করোনা ঝুঁকিতে রয়েছেন। (উত্তর আসবে মোবাইলে এসএমএস এর মাধ্যমে)। এছাড়া, আপনি কোন এলাকায় রয়েছেন সেটাও এই সাইটের ডিজিটাল ম্যাপে দেখাবে। ফলে একইসঙ্গে দেশের করোনা ঝুঁকিপ্রবণ এলাকাগুলোও দেখা যাবে।এছাড়া রয়েছে livecoronatest.com নামের একটি সাইট। এই সাইটে লগইন করে ‘লাইভ করোনা ঝুঁকি টেস্ট’ করা যাবে কিছু প্রশ্নের উত্তর দিয়ে। এছাড়া এই সাইট থেকে মেসেঞ্জার ও ভাইবারে অ্যাপে গিয়েও টেস্ট করা সম্ভব। তবে যারা সরাসরি মেসেঞ্জার থেকে ঝুঁকি টেস্ট করাতে চান, তাদের মেসেঞ্জারে গিয়ে livecoronatest লিখলে চলে আসবে টুলটি।

তারপর প্রশ্ন-উত্তর দিয়ে জানা যাবে করোনা ঝুঁকির মাত্রা। অন্যদিকে ভাইবার ব্যবহারকারীরা ভাইবার অ্যাপে প্রবেশ করে বাংলায় লিখবেন ‘করোনা ঝুঁকি টেস্ট’। টুলটি চলে আসলে শুরু হয়ে যাবে বাংলায় প্রশ্ন-উত্তর পর্ব। মেসেঞ্জার ও ভাইবার চ্যাটবট দুটোই বাংলায়।অন্যদিকে হোয়াসটস অ্যাপ ও ভাইবারেও (কোভিড-১৯ ) চ্যাটবট চালু করা হয়েছে। যদিও এই দুই মাধ্যমে প্রিলোডেড নির্ভুল তথ্য পাওয়া যাবে। এই দুই মাধ্যমে রিয়েল টাইম তথ্য পাওয়া না গেলেও ব্যবহারকারীরা প্রশ্ন করে উত্তর জেনে নিতে পারবেন।এছাড়া আইসিটি বিভাগ করোনাবিষয়ক তথ্যের জন্য ন্যাশনাল ডাটা অ্যানালাইটিকস টাস্কফোর্স গঠন করেছে। দেশের বিভিন্ন এলাকাকে করোনাভাইরাসের অধিক ঝুঁকিপূর্ণ, মধ্যম ঝুঁকিপূর্ণ ও কম ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে ভাগ করে চিহ্নিত করা হয়েছে। ফলে একনজরেই বোঝা যাবে দেশের কোথায় কী অবস্থা। এটা দেখে লোকেশনভিত্তিক আইসোলেশন বেড এবং সন্দেহভাজন করোনা রোগীর মধ্যে তুলনা, প্রয়োজনীয় আইসোলেশন বেড, আইসোলেশন সক্ষমতা, সন্দেহভাজন করোনা রোগীর সংখ্যা বের করা সম্ভব।এসব সাইট, চ্যাটবট স্বাস্থ্য অধিদফতরের নির্দেশনা মেনে তৈরি করেছে সরকারের আই্সিটি বিভাগ।

সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন

প্রতিদিন ৩৫০০+ সংবাদ পড়ুন প্রিয়-তে

এই সম্পর্কিত

আরও