কুইক লিঙ্ক : মুজিব বর্ষ | করোনা ম্যাপ | করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব

বসছে ফ্লোরম্যাট-বেড, পুরোদমে চলছে বসুন্ধরা হাসপাতালের কাজ

বাংলা নিউজ ২৪ প্রকাশিত: ২১ এপ্রিল ২০২০, ১৪:২০

ঢাকা: ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় (আইসিসিবি) নির্মাণাধীন দেশের বৃহত্তম করোনা আইসোলেশন সেন্টারের (হাসপাতাল) নির্মাণ কাজ পুরোদমে এগিয়ে যাচ্ছে। দেড় লাখ বর্গফুটের এক্সপো ট্রেড সেন্টারটিতে ফ্লোরম্যাট বসানোর কাজ ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় (আইসিসিবি) নির্মাণাধীন দেশের বৃহত্তম করোনা আইসোলেশন সেন্টারের (হাসপাতাল) নির্মাণ কাজ পুরোদমে এগিয়ে যাচ্ছে। দেড় লাখ বর্গফুটের এক্সপো ট্রেড সেন্টারটিতে ফ্লোরম্যাট বসানোর কাজ চলছে। এরপর রোগীদের বেড, ফার্নিচার, চিকিৎসক ও নার্সদের বসার কক্ষগুলো সেট করা হবে। এসব কাজ শেষ হলেই করোনা ভাইরাস আক্রান্তদের চিকিৎসাকেন্দ্রে রূপ নেবে দেশের বৃহত্তম কনভেনশন সেন্টার আইসিসিবি। কোভিড-১৯ বিপর্যয় শেষ না হওয়া পর্যন্ত এবং সরকারের যতদিন ব্যবহারের প্রয়োজন শেষ না হবে ততদিন আইসিসিবিকে ব্যবহারের জন্য দেওয়া হয়েছে। আর ১৫ দিনের মধ্যে আইসিসিবিকে পূর্ণাঙ্গ হাসপাতালে রূপ দেওয়ার লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে ১২ এপ্রিল কাজ শুরু করেছে স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদফতর। স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদফতরের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী মো. আবদুল হামিদ বলেন, দেশের মানুষ যাতে সঠিক সময়ে সেবা পায় সেজন্য আমরা কাজ করছি। সরকার সাধারণ ছুটি ঘোষণার পরেও স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা ছুটি ভোগ করছে না। সার্বক্ষণিক কাজ করে যাচ্ছি। আমরা প্রাণপন চেষ্টা করে যাচ্ছি যত দ্রুত সম্ভব এই ভবনটিতে হাসপাতালের কার্যক্রম শুরু করতে পারি। আমাদের বেড চলে এসেছে, টয়লেটের কাজ প্রায় শেষের দিকে। ম্যাট বিছানোর কাজ চলছে। সব ধরনের কাজ একসঙ্গে চালিয়ে যাচ্ছি যাতে আমরা লক্ষ্য অর্জন করতে পারি। সাধারণ ছুটির কারণে ঠিকাদারকে অনেক কষ্ট করে জিনিসপত্র সংগ্রহ করতে হয়েছে। তিনি বলেন, ডক্টর চেম্বার, নার্স চেম্বার, ওয়ার্ক স্টেশন এগুলো লে-আউট করে ফার্নিচার বসানো শুরু হবে। যথা সময়েই হাসপাতালটির নির্মাণ কাজ শেষ করতে পারবো বলে আমরা আশাবাদী। তারপরও দু-এক দিন সময় বেশি লাগতে পারে। হাসপাতালে মোট আইসোলেশন বেড হবে ২ হাজার ১৩টি। ট্রেড সেন্টারে ছয় ক্লাস্টারে ১ হাজার ৪৮৮টি বেড বসবে। এছাড়া তিনটি কনভেনশন হলে থাকবে আরও ৫২৫টি বেড। এর বাইরে ৪ নম্বর হলে হবে ৭১ বেডের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র (আইসিইউ)। করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসাসেবা দিতে সরকারকে আইসিসিবিতে ৫ হাজার শয্যার একটি সমন্বিত অস্থায়ী হাসপাতাল প্রতিষ্ঠার প্রস্তাব দেন দেশের শীর্ষস্থানীয় শিল্পগোষ্ঠী বসুন্ধরা গ্রুপের চেয়ারম্যান আহমেদ আকবর সোবহান। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সম্মতি দিলে স্বাস্থ্য অধিদফতর ও বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর একটি দল পরিদর্শন করে হাসপাতাল স্থাপনের উদ্যোগ নেয়।চলছে। এরপর রোগীদের বেড, ফার্নিচার, চিকিৎসক ও নার্সদের বসার কক্ষগুলো সেট করা হবে। এসব কাজ শেষ হলেই করোনা ভাইরাস আক্রান্তদের চিকিৎসাকেন্দ্রে রূপ নেবে দেশের বৃহত্তম কনভেনশন সেন্টার আইসিসিবি।

সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন

প্রতিদিন ৩৫০০+ সংবাদ পড়ুন প্রিয়-তে

এই সম্পর্কিত

আরও