কুইক লিঙ্ক : মুজিব বর্ষ | করোনা ম্যাপ | করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব

৫০ দিনে মুজিব কুইজে এক কোটি মানুষ

রাকিবুল হাসান
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ২০ জানুয়ারি ২০২১, ১৬:৩৪
আপডেট: ২০ জানুয়ারি ২০২১, ১৬:৩৪

মুজিববর্ষ উপলক্ষ্যে আয়োজিত ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব কুইজ’ প্রতিযোগিতায় গত ৫০ দিনে এক কোটি মানুষ যুক্ত হয়েছেন। পাঁচ লাখের বেশি অংশগ্রহণকারী ৪০ লাখ বার কুইজটি খেলেছেন।

১৯ জানুয়ারি, মঙ্গলবার মুজিব কুইজের ৫০তম দিন উপলক্ষ্যে আয়োজিত অনুষ্ঠানে এসব তথ্য জানানো হয়। অনুষ্ঠানটি লাইভ হয় প্রিয়.কমের ফেসবুক ও ইউটিউব চ্যানেলে।

অনুষ্ঠানে প্রিয়.কমের সিইও জাকারিয়া স্বপন জানান, গত ৫০ দিনে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মুজিব কুইজ সংক্রান্ত বিষয়ে যুক্ত হয়েছেন এক কোটির বেশি মানুষ। তাদের মধ্যে ৫১ লাখের বেশি মানুষ কুইজ সংক্রান্ত পোস্টে লাইক, কমেন্ট, রিঅ্যাক্ট দিয়েছেন। ১১ লাখ মানুষ কুইজের জন্য রেজিস্ট্রেশন করেছেন। ১১ লাখের মধ্যে ৫ লাখের বেশি মানুষ প্রায় ৪০ লাখ বার কুইজটি খেলেছেন।

এদিকে মুজিব কুইজের ৫০তম দিন উপলক্ষ্যে আগের সব  বারের চেয়ে ভিন্নভাবে আয়োজন করা হয় ‘শেয়ার করেও জিতুন’ পর্বটি। এবারের পর্বে অতিথি হয়ে উপস্থিত ছিলেন বিভিন্ন সময়ে মুজিব কুইজে বিজয়ীরা। তারা লাইভ অনুষ্ঠানে ‘শেয়ার করেও জিতুন’ পর্বের বিজয়ীদের কল করে বিজয়ের বার্তা জানান।

শেয়ারের মাধ্যমে যারা অবদান রেখেছেন মুজিব কুইজে

১ ডিসেম্বর থেকে শুরু হওয়া মুজিব কুইজের বিভিন্ন পোস্ট শেয়ার দিয়েছেন কয়েক লাখ মানুষ। এর মধ্যে যাদের শেয়ার থেকে বেশি মানুষ কুইজে অংশ নিয়েছেন এমন তিনজনও লাইভ অনুষ্ঠানে অতিথি হয়ে উপস্থিত ছিলেন এবং এবারের ‘শেয়ার করেও জিতুন’ পর্বের বিজয়ীদের ফোন দেন। 

উল্লেখ্য, শেয়ার করে বেশি সংখ্যক মানুষকে মুজিব কুইজে অংশগ্রহণে উদ্বুদ্ধ করায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদ্‌যাপন জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটি ও প্রিয়.কম ওই তিন জনকে বিশেষভাবে পুরস্কৃত করে।  

সেই তিন জন হলেন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী সুজন আলী, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী রাশিদ হোসেন এবং গণমাধ্যমকর্মী জামিল আহমেদ। প্রত্যেকে  পাচ্ছেন ৫০ হাজার টাকার চেক।

লাইভ অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে জামিল আহমেদ বলেন, “বঙ্গবন্ধু কুইজ আমাদের সামনে অনেকটা আই ওপেনারের মতো কাজ করেছে। এটি সত্যিকার অর্থে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে স্ট্যাডি করা, জানা, কুইজে অংশ নিতে গেলে চিন্তা করতে হয়, ভাবতে হয়। বঙ্গবন্ধু কুইজ এই কাজটি করে দিতে পেরেছে বলে আমার কাছে মনে হয়।”

‘শেয়ার করেও জিতুন’ এবাররের পর্বের বিজয়ী

১২ জানুয়ারি থেকে ১৮ জানুয়ারি পর্যন্ত ৬২ হাজার ৬৬ জন, এক লাখ ৬১ হাজার ১৪৩ বার মুজিব কুইজ সংক্রান্ত পোস্ট শেয়ার করে অংশ নিয়েছেন ‘শেয়ার করেও জিতুন’ পর্বে। মুজিব কুইজের ৫০তম দিন উপলক্ষ্যে তাদের মধ্যে থেকে লটারির মাধ্যমে এবার ১০ জনকে পুরস্কৃত করা হয়। জয়ীরা প্রত্যেকে পাবেন একটি করে ল্যাপটপ। 

এবারের ল্যাপটপ বিজয়ীরা হলেন, নাটোর থেকে এএসএম ফানাফিনলাহ জনি, বরগুনা থেকে লামিয়া, সিরাজগঞ্জ থেকে ইফতেখা মবিন রাজু, চট্টগ্রাম থেকে পলাশ চৌধুরী, দিনাজপুর থেকে দিপা রানী সরকার, লালমনিরহাট থেকে আব্দুর রাজ্জাক, চট্টগ্রাম থেকে মোর্শেদ চৌধুরী, চাঁদপুর থেকে আজাহুরুল ইসলাম নাঈম, জামালপুর থেকে সাদিয়া ইসলাম এবং চট্টগ্রাম থেকে মেহেরুন নেসা।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত মুজিব কুইজের বিভিন্ন সময়ের বিজয়ীরা হলেন- ঢাকা মহিলা কলেজের শিক্ষক মনিরুল ইসলাম, উত্তরা থেকে সাহেব আলী, শিক্ষার্থী অধরা জাহান, জাহিদ হোসেন রিপন, ওয়াশিমুল বারী, শিপা চাকমা। তারা এবারের পর্বের বিজয়ীদের কল করে কুইজ বিজয়ের খবর জানান।


প্রসঙ্গত, প্রতিদিনের কুইজের বিজয়ীর পাশাপাশি কুইজটি যারা ফেসবুকে শেয়ার (https://quiz.priyo.com/share-n-win/) করছেন, তাদেরকে নিয়ে প্রতি সপ্তাহের শেষে লটারি করে ৭ জন বিজয়ী নির্বাচিত করা হয়। যারা প্রতিদিনের কুইজ বা কুইজ সংশ্লিষ্ট যেকোনো কিছু ফেসবুকে শেয়ার করবেন, তাদেরকে নিয়েই সপ্তাহ শেষে এ লটারি হয়। বিজয়ীদের জন্য প্রতি সপ্তাহেই থাকে বিভিন্ন ধরনের আকর্ষণীয় উপহার।

কুইজে অংশ নিতে https://mujib100.gov.bd অথবা https://quiz.priyo.com ওয়েবসাইট অথবা প্রিয় অ্যাপ (ডাউনলোড লিংক https://dl.priyo.com) এর যেকোনো একটি মাধ্যমে নিবন্ধন করে অংশ নিতে হবে। একজন প্রতিযোগী একটি আইডি দিয়ে প্রতিটি কুইজে একবার অংশগ্রহণ করতে পারবেন। প্রত্যেক প্রতিযোগীকে নাম, ঠিকানা, ছবি, ফোন নাম্বার, ইমেইল/সোশ্যাল মিডিয়া আইডি ব্যবহার করতে হবে, যা বিজয়ীদের ক্ষেত্রে তাদের জাতীয় পরিচয়পত্র অথবা জন্মনিবন্ধন সনদের সঙ্গে যাচাই করা হবে। একজন প্রতিযোগীকে একবার নিবন্ধন করলেই চলবে। পূর্বে নিবন্ধন করে থাকলে নতুন করে নিবন্ধনের প্রয়োজন নেই। ভুল তথ্য দিয়ে অংশগ্রহণ করলে তাকে পরবর্তীতে অযোগ্য বিবেচনা করা হবে। প্রতিযোগিতায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবন ও কর্মের উপর এমসিকিউ পদ্ধতিতে প্রশ্ন থাকছে।

প্রতিদিন একটি নতুন কুইজ দেওয়া হয় এবং কুইজের মেয়াদ ২৪ ঘণ্টা (০০:০১ মিনিট হতে ২৩:৫৯ মিনিট পর্যন্ত)। প্রতিদিন সঠিক উত্তরদাতাদের মধ্যে থেকে লটারির মাধ্যমে ১০০ জন বিজয়ীর সবাই পাবেন ১০০ জিবি করে মোবাইল ডাটা এবং তাদের মধ্যে প্রথম ৫ জন পাবেন স্মার্টফোন। এ ছাড়া পুরো প্রতিযোগিতায় গ্রান্ড প্রাইজ হিসেবে থাকবে মোট ১০০টি ল্যাপটপ। বাংলাদেশের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় এ অনলাইন কুইজ প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছে- জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদ্‌যাপন জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটি। সহায়তা করছে- শিক্ষা মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন। কুইজটির স্ট্র্যাটেজিক পার্টনার- তথ্য মন্ত্রণালয়, ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগ, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ। আর এটির বাস্তবায়ন সহযোগী প্রিয়.কম।

এছাড়াও এ আয়োজনে সার্বিকভাবে আছে দারাজ বাংলাদেশ, নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়, ইউনাইটেড গ্রুপ ও টেলিটক বাংলাদেশ।