কুলাউড়ায় সড়কে ধান রোপণ করে প্রতিবাদ

মানবজমিন প্রকাশিত: ২০১৯-০৫-২৩ ০০:০০:০০

সড়কে ধান রোপণ ও মানবন্ধন করে ক্ষতিগ্রস্ত রাস্তা মেরামতের দাবি জানালো ভোগান্তির শিকার এলাকাবাসী। অভিনব এই প্রতিবাদটি জায়িছেন মৌলভীবাজারের কুলাউড়ার শরীফপুর ইউনিয়নের ইটারঘাট নছিরগঞ্জ বাজার এলাকার বাসিন্দারা। মানবন্ধন ও সড়কে ধান রোপণ করে প্রতিবাদে অংশগ্রহণকারীদের অন্যতম দাবি ছিল বিগত বন্যায় ওই এলাকার ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত রাস্তাঘাট মেরামত, চাতলা ব্রিজে বেড়িবাঁধ ও বন্যা প্রতিরোধে নদীর প্রতিরক্ষা বাঁধ পুনঃনির্মাণের। গতকাল দুপুরে উপজেলার শরীফপুর ইউনিয়নের ইটারঘাট বাজার চৌমুহনায় ঘণ্টাব্যাপী মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশে ওই এলাকার দুর্ভোগে পড়া বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার ৩ শতাধিক লোকজন অংশ নেন। প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্যকালে এলাকাবাসী ক্ষোভ ও অভিযোগ করে বলেন- বিগত বন্যায় এই এলাকার সড়কগুলো চরম ক্ষতিগ্রস্ত হলেও দীর্ঘদিন থেকে সংস্কার না হওয়ায় এখন চলাচলের অনুপযোগী। এমন বেহাল দশায় পড়া সড়কের সংস্কার কাজের জন্য সংশ্লিষ্ট নানা জায়গায় ধরনা দিয়েও কাজ হচ্ছে না। অথচ এই সড়কটিই ওই এলাকার মানুষের উপজেলা ও জেলা শহরের সঙ্গে যোগাযোগের একমাত্র মাধ্যম। তাই এলাকার রোগী, গর্ভবতী মা ও স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা ওই সড়ক দিয়ে চলাচলে চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন। বক্তারা বলেন- একবছর আগে বন্যার কবলে পড়ে রাস্তার এমন করুণ দশা হলেও তা মেরামতে সংশ্লিষ্টদের কোন উদ্যোগই চোখে পড়ছে না। এখন এই রাস্তার অবস্থা খুবই নাজুক। ইটারঘাট ও চাতলাপুর চেকপোস্ট রাস্তাটি সংস্কার, মনু নদীর চাতলাপুর বেড়িবাঁধ স্থায়ীভাবে নির্মাণসহ ওই এলাকার বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত ছোট বড় সড়কগুলো দ্রুত মেরামতের জন্য সংশ্লিষ্টদের প্রতি জোর দাবি জানাচ্ছি। তারা হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, খুব শিগগিরই যদি তা মেরামতের কাজ শুরু না হয় তা হলে এই ন্যায্য দাবি আদায়ে আরো কঠোর কর্মসূচি নিয়ে ওই এলাকার দুর্ভোগগ্রস্থরা রাজপথে আন্দোলনে নামবে। মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মো. তফাজ্জল হোসেন চিনু, মো. খলিলুর রহমান, বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. মুস্তাকিম আলী, প্রবাসী আবদুল হান্নান, মো. নাজিম উদ্দিন, আবদুল হাকিম, মো. রুবেল রানা, মো. মৌলানা আমির উদ্দিন কাসেম, শামীম মাহমুদ, বিকাশ দেব প্রমুখ।

সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন

আরও