১৯৭০ এর ইতিহাসখ্যাত নির্বাচনের সঙ্গে এবারের কলঙ্কজনক নির্বাচনের তুলনা করা ঠিক হবে না : দুদু

আমাদের সময় প্রকাশিত: ২০১৯-০১-১৫ ১৪:৪৫:০০

মারুফুল আলম : বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু বলেছেন, ১৯৭০ এর ইতিহাসখ্যাত নির্বাচনের সঙ্গে এবারের কলঙ্কজনক নির্বাচনের তুলনা করা ঠিক হবে না। এই নির্বাচন আর ঐ নির্বাচন একেবারেই ভিন্ন মাত্রার। মঙ্গলবার চ্যানেল আই’র তৃতীয় মাত্রায় তিনি আরো বলেন, মাত্রাজ্ঞানের কথা বলবো না, আমি এটি বিবেকের ওপর ছেড়ে দিতে চাই। সত্যিকারের নির্বাচন বলতে যা বোঝায় সেটি হচ্ছে ১৯৭০-এর নির্বাচন, আর সত্যিকারের ত্রæটিপূর্ণ নির্বাচন বলতে যা বোঝায়, সেটি হচ্ছে ২০১৮’এর নির্বাচন।  তিনি বলেন, আমরা এমন একটি ঘটনার মধ্যে জাতিকে ঢুকিয়ে ফেলেছি, যেখান থেকে বের হতে হবে এবং কীভাবে বের হওয়া যাবে, সেটিও কিন্তু রাজনৈতিক দলগুলোকে গ্রহণ করতে হবে।জামায়াতকে ছাড়া নিয়ে ড. কামালের বক্তব্য প্রসঙ্গে দুদু বলেন, ড. কামাল সাহেব আওয়ামী লীগও করেন না, বিএনপিও করেন না। তিনি যদি গণফোরামের পক্ষ থেকে দলপ্রধান হিসেবে কিছু বলেন, বলতেই পারেন। সম্প্রতি আইনমন্ত্রী বলেছিলেন, এমন কোনো আইন নাই, যাতে জামায়াতকে বাতিল করা যায়। দুদু বলেন, জামায়াত বাতিলের ব্যাপারে এখন নতুন করে আইন সংশোধনের পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। ড. কামাল বা আমরা কেউ জামায়াত করি না। জামায়াতের বিরোধিতা করলে সেটি রাজনৈতিকভাবে করার আছে বলেই মনে করেন বিএনপির এই নেতা।দুদু আরো বলেন, যারা আজকে পার্লামেন্টে গেছেন, পার্লামেন্টে ভ‚মিকা পালন করতে চান, আমি মানি আর না মানি, কিছু যায় আসে না। কিন্তু এই পার্লামেন্টের গায়ে যে জঘন্য ঘটনাগুলোর দায় একেবারে ছাপ মারা হয়ে গেছে, সেটি থেকে বেরিয়ে আসার যে রাস্তা বের করতে তারা ভ‚মিকা রাখতে পারে। যেমন ১৫ ফেব্রæয়ারির নির্বাচনকে টার্গেট করে আওয়ামী লীগ অনেক কথা বলেছিলো। কিন্তু ১৯৯৬ সালের সেই পার্লামেন্টই এ দেশে তত্ত¡াবধায়ক সরকার অনুমোদন করেছিলো।বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান দুদু বলেন, আমি এই পার্লামেন্টকে ভোট ডাকাতির পার্লামেন্ট এবং লুটপাটের পার্লামেন্ট মনে করি। কিন্তু যা-ই মনে করি না কেনো, এই পার্লামেন্ট যদি আরেকটি ভালো নির্বাচনের জন্য নির্দলীয় সরকারের একটি সরকারের রুপরেখা জাতির সামনে প্রণয়ন করতে পারে, তাহলেই মনে করবো এই পার্লামেন্ট সত্যিকারের ভ‚মিকা পালন করেছে।

সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন

আরও