শান্ত-রাব্বীর ব্যাটে সিরিজে সমতা ফেরালো এইচপি টিম

মানবজমিন প্রকাশিত: ২০১৯-০৮-২২ ০০:০০:০০

শ্রীলঙ্কান ইমার্জিং দলের কাছে প্রথম ম্যাচে বড় ব্যবধানে হেরে গিয়েছিল বাংলাদেশ হাই-পারফরম্যান্স টিম  (এইচপি)। গতকাল সিরিজ বাঁচানো দ্বিতীয় ম্যাচে ঘুরে দাঁড়িয়েছে নাজমুল হোসেন শান্তরা। লঙ্কানদের ২ উইকেটে হারিয়ে তিন ম্যাচ সিরিজে ১-১ সমতা এনেছে এইচপি টিম। বিকেএসপিতে অনুষ্ঠিত ম্যাচে আগে ব্যাটিং করে ৪৯.৪ বলে সবকটি উইকেট হারিয়ে ২৭৪ রানের চ্যালেঞ্জিং স্কোর গড়ে শ্রীলঙ্কা ইমার্জিং টিম। জবাবে ৩ বল ও ২ উইকেট হাতে রেখে লক্ষ্যে পৌঁছে যায় বাংলাদেশ এইচপি টিম। ২৭৫ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই নাঈম শেখের উইকেট হারিয়ে বসে বাংলাদেশ এইচপি টিম। দলীয় ১২ রানে রান আউটে কাটা পড়ে বিদায় নেন নাঈম। এরপর দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে ৫৬ রান যোগ করেন নাজমুল হোসেন শান্ত এবং ওপেনার সাইফ হাসান। ২৭ রান করে সাইফ বিদায় নিলেও শান্ত এবং ইয়াসির আলি চৌধুরী রাব্বী প্রতিরোধ গড়েন। দুজনই তুলে নেন ফিফটি। শান্ত-রাব্বীর ব্যাটে ভর করে ১৫০ পার করে এইচপি দল। কিন্তু দলীয় ১৮৪ রানে শান্তর বিদায়ে ভাঙে ১২০ রানের জুটি। ৮৮ বলে ৯ চার ও এক ছক্কায় ৭৭ রান করা শান্ত শিরান ফার্নান্ডোর শিকার হন তিনি।চতুর্থ উইকেটে আফিফ হোসেন ধ্রুবর সঙ্গে ৪৩ রানের কার্যকরী জুটি গড়েন রাব্বী। কিন্তু অল্পের জন্য সেঞ্চুরি মিস করেন তিনিও। ৯৩ বলে ৩ চার ও ৫ ছয়ে ৮৫ রান করে সাজঘরে ফেরেন রাব্বী। তার বিদায়ের পর ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে এইচপি দল। ২২৭/৪ থেকে ২৬১/৮ হয়ে যায় স্কোর। তাতে পরাজয়ের শঙ্কা জাগে এইচপি শিবিরে।  শেষ ওভারে জয়ের জন্য প্রয়োজন ছিল ১২ রান। ক্রিজে থাকা ব্যাটসম্যান ইয়াসিন আরাফাত মিশু টানা দুই ছক্কা হাঁকিয়ে নিশ্চিত করেন জয়।এর আগে বিকেএসপি ৩ নম্বর মাঠে টসে জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন লঙ্কান ইমার্জিং দলের অধিনায়ক চারিথ আসালাঙ্কা। ৪৯.৪ বলে সবকটি উইকেট হারিয়ে ২৭৩ রান সংগ্রহ করে শ্রীলঙ্কা ইমার্জিং দল। সফরকারীদের পক্ষে সর্বোচ্চ ৬৫ রান করেন কামিন্ডু মেন্ডিস। বাংলাদেশ ইমার্জিং দলের হয়ে শফিকুল ইসলাম ৩টি ও নাঈম হাসান নেন ২ উইকেট।

সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন

আরও