চৌদ্দগ্রামে এতিমখানায় দুর্নীতির বিরুদ্ধে অভিযান

মানবজমিন প্রকাশিত: ২০১৯-০৮-১৫ ০০:০০:০০

দীর্ঘদিন ধরে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামের ঐতিহ্যবাহী বাতিসা এমিতখানা পরিচালনা কমিটির বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ উঠলেও অবশেষে স্থানীয় সংসদ সদস্য ও সাবেক রেলমন্ত্রী মুজিবুল হকের নির্দেশে সাঁড়াশি অভিযান পরিচালনা করেছে উপজেলা প্রশাসন। সোমবার দিনভর অভিযানে নেতৃত্ব দেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মাসুদ রানা। তাকে সহযোগিতা করেন চৌদ্দগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবদুল্লাহ আল মাহফুজ, উপজেলা সমাজসেবা অফিসার নাসির উদ্দিন। অভিযানটি সর্বমহলে প্রশংসিত হয়েছে। জানা গেছে, বহু বছর ধরে বাতিসা এতিমখানার পরিচালনা কমিটির মোহাম্মদ আলী, গোলাম সরোয়ার দুলাল পাটোয়ারী ও কেয়ার টেকার নজরুল ইসলাম সৈকতের বিরুদ্ধে নানা অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ উঠে। এনিয়ে স্থানীয় এলাকাবাসী বিভিন্ন দপ্তরে একাধিক অভিযোগ পত্র দায়ের করলেও তা কার্যকর হয়নি। অবশেষে স্থানীয় সংসদ সদস্য মুজিবুল হকের নির্দেশে উপজেলা প্রশাসন অভিযান পরিচালনা করেন। চৌদ্দগ্রাম উপজেলা সমাজসেবা অফিসার নাসির উদ্দিন জানান, দীর্ঘদিন ধরে ঐতিহ্যবাহী বাতিসা এতিমখানা পরিচালনা কমিটির বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ পাওয়া গেছে। এর পরিপ্রেক্ষিতে কুমিল্লা জেলা সমাজসেবা অফিসার গত ১৮ই জুন পরিচালনা কমিটি বাতিল করে। পরবর্তীতে সোমবার এতিমখানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে সকল অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়। সঙ্গে সঙ্গে এতিমদের থাকার জন্য কক্ষে পাঁচটি বৈদ্যুতিক পাখা প্রদান, স্বাস্থ্য প্রকৌশলীকে দিয়ে একটি গভীর নলকূপ স্থাপন করা হয়েছে। এতিমদের থাকার জন্য নতুন বালিশসহ আসবাবপত্রের ব্যবস্থা করা হয়। এছাড়া চৌদ্দগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবদুল্লাহ আল মাহফুজ ব্যক্তিগত উদ্যোগে এতিমদের দশটি মশারি প্রদান করেন। এতিমদের কক্ষে টাইলস্‌ এবং বাথরুম স্থাপনের কাজ চলছে। তিনি আরও বলেন, আগের পরিচালনা কমিটির নানান অনিয়ম ও ৫২টি দোকানের আয়-ব্যয়সহ সকল অর্থনৈতিক হিসেবের জন্য আলাদা কমিটি গঠন করে তদন্ত করা হবে। তদন্তের যাদের বিরুদ্ধে অভিযোগের সত্যতা পাওয়া যাবে-তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন

আরও