কক্সবাজারে রোহিঙ্গা শরনার্থী শিবিরে অগ্নিকাণ্ড

(প্রিয়.কম) কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলার একটি রোহিঙ্গা শরনার্থী শিবিরে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। ১৩ ডিসেম্বর বুধবার রাত সোয়া ১০টার দিকে উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের লেদা শরনার্থী শিবিরে এ ঘটনা ঘটে। এতে প্রায় ২০ লাখ টাকার ক্ষয়-ক্ষতি হয়েছে বলে প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, লেদা রোহিঙ্গা শিবিরের একটি বাজারে বৈদ্যুতিক শটসার্কিট থেকে অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়। পরে খুব দ্রুত ওই আগুন বস্তির চারদিকে ছড়িয়ে যায়। এসময় স্থানীয় লোকজন ও রোহিঙ্গা সম্মিলিতভাবে অগ্নিকাণ্ড নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়।

স্থানীয় মেম্বার আলহাজ্ব নুরুল হুদা বলেন, লেদা অনিবন্ধিত রোহিঙ্গা ক্যাম্পটির অবস্থান উত্তর-দক্ষিণ লম্বা। একেবারে দক্ষিণ পাশে বিশাল বাজার। বাজারের আব্বাসের চা দোকান থেকে অগ্নিকান্ডের সুত্রপাত হয়। মুহুর্তেই আগুন চারদিকে ছড়িয়ে পড়ে। তবে আইওএম এর পানির লাইন ব্যবহার করে আগুন নিয়ন্ত্রণ আনা সম্ভব হয়েছে। ততক্ষণে রোহিঙ্গাদের ১টি বাসা এবং ২১টি দোকান পুড়ে যায়। ক্ষয়-ক্ষতির পরিমাণ আনুমানিক ২৫ লক্ষাধিক টাকা হবে।

অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়ে টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাহেদ হোসেন ছিদ্দিক ঘটনাস্থলে ছুটে যান। তিনি বলেন, আগুনে নগদ টাকা, দোকানের মালামাল, আসবাপত্র ইত্যাদি পুড়ে প্রায় ২৫ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে। তবে ঘটনায় হতাহত হয়নি।  

এদিকে অগ্নিকাণ্ডের খবরে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের একটি দল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

প্রিয় সংবাদ/আশরাফ