রানি মুখার্জি। ছবি: সংগৃহীত

শ্বশুরবাড়ি ছাড়লেন রানি মুখার্জি

শামীমা সীমা
সহ সম্পাদক
প্রকাশিত: ২০ জুলাই ২০১৯, ০৮:৩৮
আপডেট: ২০ জুলাই ২০১৯, ০৮:৩৮

(প্রিয়.কম) ভারতের মুম্বাইয়ে অবস্থিত সবচেয়ে অভিজাত এলাকা জুহুতে প্রয়াত চলচ্চিত্র পরিচালক যশ চোপড়ার বিশাল বাংলো। সেখানেই স্বামী আদিত্য চোপড়া ও কন্যা আদিরাকে নিয়ে বিয়ের পর থেকেই বাস করছিলেন বলিউড অভিনেত্রী রানি মুখার্জি। যশ চোপড়ার মৃত্যুর পর শাশুড়ি পামেলা চোপড়া ও দেবর উদয় চোপড়াকে নিয়ে একই বাড়িতে থাকতেন এই দম্পতি। কিন্তু কদিন আগে জানা গেল, শ্বশুরবাড়ি ছেড়ে নতুন বাড়িতে উঠেছেন রানি ও আদিত্য চোপড়া।

জানা যায়, মেয়ে আদিরার জন্মের পরেই নাকি নতুন বাড়িতে উঠে যাওয়ার পরিকল্পনা করছিলেন রানি-আদিত্য দম্পতি। সম্প্রতি সেই বাড়িতে চলেও গিয়েছেন আদিত্য-রানি। কিন্তু হঠাৎ কেন এই বাড়ি বদল? কী কারণে নতুন বাড়িতে গেলেন তারা? এর জবাব খুঁজতে গিয়ে জানা গেল, বাড়ি বদলের আসল কারণ।

আদিত্য চোপড়া ও কন্যা আদিরার সঙ্গে রানি মুখার্জি। ছবি: সংগৃহীত

শাশুড়ি পামেলার সঙ্গে বেশ ভালো সম্পর্ক রানির। দেবর উদয়ের সঙ্গেও তাই। কিন্তু মেয়ে আদিরাকে লাইমলাইট থেকে দূরে রাখতে চান দু’জনে। চোপড়াদের বাংলোতেই যশরাজের অফিস। আর তাই সারাদিন অনেক লোকের আনাগোনা লেগেই থাকে। সেইসঙ্গে ক্যামেরার ঝলকানি তো থাকেই। আর সেই কারণেই এই সিদ্ধান্ত নিয়ে আলাদা বাড়িতে উঠলেন রানি। এই পরিবেশে মেয়েকে বড় করতে চান না রানি ও আদিত্য।

আর তাই নিজেদের বাংলোর কাছেই আরও একটা বাড়ি কিনে সেখানে চলে গিয়েছেন তারা। বাড়ি কাছে নেওয়া হয়েছে, যাতে আদিত্যরও সুবিধা হয়, আবার পামেলাও ইচ্ছে করলেই নাতনিকে গিয়ে দেখে আসতে পারেন। কোনো কিছু দরকারে দু বাড়ির লোক এক জায়গায় সহজেই হতে পারে। আর তাই ছেলে-ছেলের বৌয়ের এই সিদ্ধান্তে না করেননি পামেলাও।

বলে রাখা ভালো, ২০১৪ সালে ইতালিতে বিয়ে হয় আদিত্য চোপড়া ও রানি মুখার্জির। পরের বছরই তাদের মেয়ে আদিরার জন্ম। তার বয়স ৪ বছর হয়ে গেলেও এখনো পাপারাজ্জির হাত থেকে বেশ দূরেই তাকে রেখেছেন রানি। ২০১৬ সালে আদিরাকে প্রথম সবার সামনে দেখা যায়। তারপর থেকে পরিবারের মধ্যেই বড় হচ্ছে সে। আর মেয়ের এই সাধারণ জীবনের জন্যই আলাদা করে বাড়ি নিলেন বাবা-মা।

সূত্র: ডেইলি হান্ট

প্রিয় বিনোদন/আশরাফ

আরো পড়ুন