রিপ্লেতে দেখা যায়, বল বিরাট কোহলির ব্যাট স্পর্শই করেনি। ছবি: সংগৃহীত

‘এমন একজনকে পাওয়া গেল, যিনি নিজেই নিজেকে আউট করতে পারেন’

সৌরভ মাহমুদ
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ১৭ জুন ২০১৯, ০৯:৪৪
আপডেট: ১৭ জুন ২০১৯, ০৯:৪৪

(প্রিয়.কম) শিখর ধাওয়ানের অনুপস্থিতি বুঝতেই দেননি রোহিত শর্মা ও লোকেশ রাহুল। রাহুল হাফসেঞ্চুরি করে ফিরে গেলেও রোহিত সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন, শেষ পর্যন্ত থামেন ১৪০ রানে। তিন নম্বরে নামা বিরাট কোহলির ব্যাটও হেসেছে। ৬৫ বলে খেলেছেন ৭০ রানের ইনিংস। ছিলেন আরেকটি সেঞ্চুরির দ্বারপ্রান্তে। কিন্তু নিজের ভুলেই ফিরে গেলেন সাজঘরে।

তখন ৪৮তম ওভারের খেলা চলছিল। পাকিস্তানি পেসার মোহাম্মদ আমিরের বাউন্সার ব্যাটের কাছ ঘেঁষে চলে যায় উইকেটরক্ষক ও পাকিস্তানি অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদের হাতে। ব্যাটে-বলে কোনো সংযোগ হয়নি। এমনকি  আম্পায়ার তখনও আঙুল তোলেননি। তবুও আমির-সরফরাজদের আউট আউট চিৎকার শুনে সরাসরি সাজঘরের দিকে হেঁটে যান ভারতীয় এই অধিনায়ক।

রিপ্লে বলছে অন্য কথা! আউটই হননি কোহলি। আল্ট্রা এজে দেখা যায়, ব্যাটে বলে কোনও সম্পর্কই হয়নি! অথচ, এজ হয়েছে ভেবে ২২ গজ ছেড়ে বেরিয়ে যান তিনি। অবশ্য ড্রেসিং রুমে ফিরে কোহলিকে দেখা যায়, ওই রিপ্লে খুঁটিয়ে দেখতে। আর ধারাভাষ্যকক্ষ থেকে তখন সৌরভ গাঙ্গুলি ও বাকিরা বলতে থাকেন যে, ব্যাটের অন্য একটা আওয়াজ শুনে কোহলি ভেবেছেন তিনি আউট।

আওয়াজ হয়েছিল, তবে সেটা কিন্তু ব্যাটে বল লাগার নয়। মহেন্দ্র সিং ধোনিকেও দেখা যায় কোহলির ব্যাট নিয়ে কোথা থেকে আওয়াজ এল, তা পরীক্ষা করতে!

খেলা শেষ হতে না হতেই সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলোতে চর্চার বিষয় হয়ে দাঁড়ায় কোহলির এই আউট। ব্রিটিশ সাংবাদিক পিয়ের্স মরগ্যান তো রীতিমতো ভারতীয় অধিনায়ককে খোঁচা দিয়ে টুইট করেছেন। সেখানে তিনি লিখেছেন, ‘এমন একজনকে পাওয়া গেল, যিনি নিজেই নিজেকে আউট করতে পারেন।’ ‘আউট ছিলে না’, কোহলিকে ট্যাগ করে টুইট করেছেন বলিউড অভিনেতা অর্জুন রামপালও।

চলুন দেখে নেওয়া যাক কোহলির এই আউট নিয়ে কিছু টুইট-

প্রিয় খেলা/রুহুল

আরো পড়ুন