প্রতীকী ছবি

নতুন কলরেটে আয় বেড়েছে অপারেটরদের

প্রিয় ডেস্ক
ডেস্ক রিপোর্ট
প্রকাশিত: ১১ জুন ২০১৯, ১৯:৫৬
আপডেট: ১১ জুন ২০১৯, ১৯:৫৬

(প্রিয়.কম) গত বছরের আগস্টে চালু হওয়া অভিন্ন কলরেটে আয় বেড়েছে দেশে থাকা মোবাইল অপারেটরদের। একই সঙ্গে রাজস্ব বেড়েছে টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনেরও (বিটিআরসি)।

সম্প্রতি বিটিআরসির এক প্রতিবেদনের বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে দেশের একটি জাতীয় দৈনিক

প্রতিবেদনে বলা হয়, গত বছরের আগস্টে চালু হওয়া অভিন্ন কলরেটে বিদ্যমান বাজারের ওপর এর কী ধরনের প্রভাব পড়ছে, তা নিয়ে প্রতিবেদন তৈরি করে বিটিআরসি।

বিটিআরসির তথ্য অনুযায়ী, নতুন কলরেট ব্যবস্থা চালুর পর গ্রামীণফোনের আয় বেড়েছে ৯ দশমিক ৫৭ শতাংশ। এ ছাড়া রবি আজিয়াটার আয় বেড়েছে ৭ দশমিক ৫১, বাংলালিংকের ৩ দশমিক ৯৩ শতাংশ এবং রাষ্ট্রায়ত্ত অপারেটর টেলিটকের বেড়েছে ৬ দশমিক ৩৮ শতাংশ।

নতুন কলরেটে অননেট ও অফনেট মিলিয়ে গ্রামীণফোনের মাসিক গড় আয় বেড়েছে ৭১ কোটি ৬০ লাখ টাকা। আর রবির ক্ষেত্রে এটি মাসিক ২৩ কোটি ৪০ লাখ, বাংলালিংকের সাত কোটি সাত লাখ ও টেলিটকের দুই কোটি ছয় লাখ টাকা।

এদিকে অভিন্ন কলরেটে অপারেটরদের আয় বাড়লেও বাড়তি ব্যয়ের অভিযোগ বেড়েছে গ্রাহকদের।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার ওই দৈনিককে বলেন, ‘গ্রাহকের সুবিধার কথা মাথায় রেখে এবং এমএনপির প্রয়োজনে অভিন্ন কলরেট চালু করা হয়েছে। যেসব গ্রাহক একাধিক সিম ব্যবহার করতেন তাদের কাছে কলরেট বেড়েছে বলে মনে হতে পারে। তবে এটি কোনো আদর্শ ব্যবস্থা নয়। নতুন কল ট্যারিফের সীমা নির্ধারণ করা হয়েছে সবকিছু বিচার-বিশ্লেষণ করেই।’

উল্লেখ্য, চলতি বছরের ১৩ আগস্ট সর্বনিম্ন ৪৫ পয়সা এবং সর্বোচ্চ দুই টাকা কলরেট করার নির্দেশনা দেয় বিটিআরসি, যা এর আগে ছিল ২৫ পয়সা ও দুই টাকা। নির্দেশনা অনুযায়ী ১৪ আগস্ট থেকেই দেশের অপারেটররা নতুন করে কলরেট নির্ধারণ করে দেয়।

প্রিয় প্রযুক্তি/আজাদ চৌধুরী

আরো পড়ুন