আনিসুর রহমান মিলন। ছবি: প্রিয়.কম

দর্শকদের সঙ্গে সংযুক্ত থাকতে মিলনের নতুন উদ্যোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রিয়.কম
প্রকাশিত: ২৭ মে ২০১৯, ১৪:৫৪
আপডেট: ২৭ মে ২০১৯, ১৪:৫৪

(প্রিয়.কম) কত ধরনের পরিশ্রম ও ত্যাগ একটি ভালো নির্মাণের পেছনে থাকে, সেটা কজনই বা জানেন। অভিনয়ের ক্ষেত্রে আনিসুর রহমান মিলন ছাড় দেন না। এই তো গেল পেশাগত জীবনের কথা। মিলনের একটি শখও আছে। শখ না বলা যায় নেশা। যারা কাছ থেকে এ অভিনেতাকে চেনেন তারা জানেন মিলনের ভ্রমণের নেশার কথা।

এই অভিনেতা নতুন এক উদ্যোগ নিয়েছেন। ভালো কাজগুলোর পেছনের গল্প ও ভ্রমণের বিভিন্ন অভিজ্ঞতা তিনি দর্শকদের সঙ্গে ভাগাভাগি করবেন। সে জন্যই গত দুই সপ্তাহ আগে ভিডিও শেয়ারিং ওয়েবসাইট ইউটিউবে স্বনামে একটি চ্যানেল খুলেছেন তিনি। ভবিষ্যতে এটি নিয়ে তার রয়েছে বড় ধরনের পরিকল্পনা।

২৭ মে, সোমবার সকালে প্রিয়.কমের সঙ্গে আলাপকালে এসব তথ্য জানালেন আনিসুর রহমান মিলন।

তিনি বলেন, ‘আমি ট্রাভেল করি, বিভিন্ন জায়গায় যাই। সে জায়গুলো যদি ভিডিও করে আমার দর্শকদের দেখাই; যে জায়গাগুলো তারা কখনোই দেখেনি। তাহলে নিশ্চয়ই তাদের ভালো লাগবে। পাশাপাশি হচ্ছে আমি যখন শুটিং করি, সেই কাজের পেছনের কিছু গল্প থাকে, যা দর্শকদের আমরা কখনো দেখাতে পারি না। কাজটার পেছনে আমাদের কতটা ত্যাগ থাকে কিংবা কষ্ট থাকে। সেটা যদি দর্শকদের দেখাতে পারি, আমার ইউটিউব চ্যানেলের মাধ্যমে তাহলে মন্দ লাগার কথা না।’

আলাপের এক পর্যায়ে এই অভিনেতা জানান, ইউটিউবে চ্যানেল খোলার বিষয়টা কোনো পরিকল্পনা করে করেননি। হঠাৎ করেই তার মাথায় বিষয়টা চেপে ধরেছে। ভবিষ্যতে কি হবে, সেটা সময়ই বলে দিবে।

মিলন বলেন, ‘এটার মাধ্যমে তো আমার নিজেরও এক ধরনের প্রমোশন হয়। চিন্তাটা আসলে এটা দিয়েও। চূড়ান্তভাবে কি হবে, সেটা তো আর আমি জানি না। পরবর্তীতে যদি এটা বড় হয়, সেখানে আমার কনটেন্ট ঢুকতে পারে, নিজস্ব কনটেন্ট ঢুকতে পারে। কিংবা এটা নিয়ে আলাদা কোনো পরিকল্পনা থাকতে পারে। এসব আসলে নির্ভর করবে আমার চ্যানেলটা মানুষের কতটা কাছে যেতে পারে।’

বাংলাদেশের টেলিভিশন ও চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় অভিনেতা আনিসুর রহমান মিলন মনে করেন, ইউটিউব তো এক ধরনের আর্কাইভ। যে কেউ ভিডিও কনটেন্ট আর্কাইভ করতে পারেন ভবিষ্যতের জন্য। যখন তিনি থাকবেন না; তখন তার দর্শক-ভক্তরা চাইলেই যাতে তার কাজগুলো এক নজরেই দেখে নিতে পারে। 

এরই মধ্যে ঈদের কাজগুলো শেষ করে ফেলেছেন মিলন। কারণ বরাবরের মতো এবার তিনি রোজার ঈদ স্ত্রী ও সন্তানের সঙ্গে আমেরিকাতে করবেন। ২৮ মে, ঢাকা ত্যাগ করার কথা রয়েছে মিলনের। আর ঢাকায় ফিরবেন দুই কিংবা তিন সপ্তাহ পর। সে কথাও জানান তিনি।

এবারের ঈদে মিলনের দেখা মিলবে তিনটি সাত পর্ব, একটি দশ পর্ব, চারটি এক ঘণ্টার নাটক ও একটি টেলিফিল্মে। 

প্রিয় বিনোদন/রুহুল

আরো পড়ুন