ভাইরাল হওয়া নির্বাচন কমিশনের ইফতারের মেন্যু কার্ড। ছবি: সংগৃহীত

নির্বাচন কমিশনে ইফতার নিয়ে বৈষম্য, ‘মেন্যু কার্ড’ ভাইরাল

মোক্তাদির হোসেন প্রান্তিক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ২২ মে ২০১৯, ১৬:৩১
আপডেট: ২২ মে ২০১৯, ১৬:৩১

(প্রিয়.কম) বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনের একটি ইফতার অনুষ্ঠানের ‘মেন্যু কার্ড’ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। যেখানে বৈষম্যের অভিযোগ তুলেছেন অনেকে; যা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় সমালোচনার ঝড় বয়ে যাচ্ছে।

২১ মে, মঙ্গলবার নির্বাচন ভবনের ফোয়ারা চত্বরে এই ইফতার অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। ইফতারে বৈষম্য করা হয়েছে লাল আঙুর, পেস্তা বাদামের সরবত ও চিকেন ভুনার।

ইফতারে দুই ধরনের মেন্যু নির্ধারিত ছিল। অভিযোগ উঠেছে, প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদাসহ অন্যান্য কমিশনাররা একটু অভিজাত ও বেশি পদের ইফতার খেলেও তাদের অধীনস্ত সাধারণ কর্মকর্তা-কর্মচারীরা খেয়েছেন অপেক্ষাকৃত দুর্বল ও কম আইটেমের ইফতার। তবে ইফতার আইটেমে এমন বৈষম্য নিয়ে কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের মধ্যে ক্ষোভ দেখা দিলেও এ বিষয়ে কেউ কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি। যদিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ইফতারের মেন্যু কার্ড ভাইরাল হওয়ার পর ধর্মীয় একটি অনুষ্ঠানে এভাবে বৈষম্য করাটাক অনেকে বাঁকা চোখে দেখছেন।

ভাইরাল হওয়া মেন্যু কার্ডে দেখা যাচ্ছে, একটিতে ১৪ পদের ইফতার আইটেম এবং অন্যটিতে ১১ পদ; যা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় রীতিমতো সমালোচনার ঝড় বয়ে যাচ্ছে। রয়েল খান ফাইম নামের এক নেটিজেন মন্তব্য করেছেন, ‘হায় রে মানুষ...ইফতার নিয়েও রাজনীতি। আল্লাহ সবাইকে হেদায়েত দান করুন।’

মোহাম্মদ ওবায়দুল্লাহ নামের একজন লিখেছেন, ‘নির্বাচন কমিশনের কর্মকর্তারা ব্রাহ্মণ, অন্যরা schedule cast, সুতরাং তফাৎ তো হবেই! চিন্তা করবেন না, মহান আল্লাহ তাদেরকে অচিরেই সুনিপুণভাবে বুঝায়ে দিবেন!’

মাহবুব জুয়েল লিখেছেন, ‘ইফতার নিয়েও তারা এমন অবিবেচকের মতো কাজ কীভাবে করল!’

প্রিয় সংবাদ/আজাদ চৌধুরী

আরো পড়ুন