সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়েই বেড়েছে আইপিএলের জনপ্রিয়তা। ছবি: সংগৃহীত

আইপিএলে ঈর্ষণীয় ধোনি-রোহিতের সাফল্য, কারণ জানালেন শচিন

মুশাহিদ
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ১৩ মে ২০১৯, ১৯:৫২
আপডেট: ১৩ মে ২০১৯, ১৯:৫২

(প্রিয়.কম) ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) পথচলা শুরু আজ থেকে ১২ বছর আগে। ২০০৮ সালে যাত্রা শুরু করার পর আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি ভারতের ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক এই টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টকে। সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়েই বেড়েছে আইপিএলের জনপ্রিয়তা।

আইপিএলের ১২ বছরের ইতিহাসে সবচেয়ে সফল অধিনায়কের তকমা পেয়েছেন মহেন্দ্র সিং ধোনি ও রোহিত শর্মা। ১২টি আসরের মধ্যে রেকর্ড সর্বোচ্চ চার বার শিরোপা জিতেছে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। চার বারই মুম্বাইকে নেতৃত্ব দিয়েছেন রোহিত শর্মা। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ তিন বার আইপিএলে সেরার মুকুট পরেছে মহেন্দ্র সিং ধোনির চেন্নাই সুপার কিংস।

এখানেই শেষ নয়; আইপিএলের ১২ বছরের ইতিহাসে এখন পর্যন্ত আট বার ফাইনাল খেলেছে ধোনির দল। রোহিত শর্মার মুম্বাই ফাইনাল খেলেছে পাঁচ বার। অন্য দলগুলো কেউ ধোনি-রোহিতের ধারে-কাছেও নেই। আইপিএলের ইতিহাসে ভারতের এই দুই ক্রিকেটারের এমন সাফল্যের কারণ জানতে চাওয়া হয়েছিল শচিন টেন্ডুলকারের কাছে। কিংবদন্তি এই ব্যাটসম্যান মনে করেন, উন্নত ক্রিকেট মস্তিষ্কের কারণে সাফল্য পাচ্ছে ধোনি-রোহিত।

রবিবার হায়দরাবাদে অনুষ্ঠিত শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচ শেষে আইপিএলের সম্প্রচারস্বত্ব পাওয়া স্টার স্পোর্টসকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে শচিন বলেন, ‘ধোনি-রোহিত দুজনই খেলা ভালো বোঝে। তাদের মধ্যে রয়েছে পরিস্থিতি পড়ে ফেলার অসামান্য ক্ষমতা। প্রথম বল থেকেই ম্যাচে মনোনিবেশ করে তারা। সেটিই ওদের সাফল্যের কারণ।’

শচিনের মতে, অন্যান্য আসরের তুলনায় এবারের ফাইনাল ম্যাচটি অনেক বেশি প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক ম্যাচ হয়েছে। তার ভাষ্য, ‘টুর্নামেন্টজুড়ে কোনো ম্যাচেই গ্যালারি খালি ছিল না। এবার ৩১টি ম্যাচের মীমাংসা হয়েছে শেষ ওভারে। এটা দেখার জন্যই বারবার স্টেডিয়ামে আসে সমর্থকরা। প্রতিদ্বন্দ্বিতা না থাকলে টি-টোয়েন্টিতে মজা নেই। এবারের আইপিএল অন্যান্য বারের চেয়ে উপভোগ্য ছিল।’

প্রিয় খেলা/আজাদ চৌধুরী

আরো পড়ুন