তৃণমূল প্রার্থী মিমি চক্রবর্তী। ছবি: সংগৃহীত

মিমির ব্যাংকে কত টাকা আছে, ফ্ল্যাট ও গাড়ির দাম কত?

আশরাফ ইসলাম
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ২৮ এপ্রিল ২০১৯, ১২:৫৭
আপডেট: ২৮ এপ্রিল ২০১৯, ১২:৫৭

(প্রিয়.কম) ভারতের চলমান লোকসভা নির্বাচনের তারকা প্রার্থী তিনি। অভিনয়ের জনপ্রিয়তার মাঝেই মিমি চক্রবর্তীকে প্রার্থী হিসেবে নির্বাচিত করেছে তৃণমূল। এর মধ্যেই রয়েছে তার ছবির কাজও। সব মিলিয়ে বেজায় ব্যস্ত বাঙালি এই অভিনেত্রী।

যাদবপুর লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী মিমি চক্রবর্তীর সম্পত্তির পরিমাণ প্রায় পৌনে তিন কোটি টাকা। নির্বাচনকে সামনে রেখে মনোনয়নের সঙ্গে হলফনামা জমা দিয়েছেন এই অভিনেত্রী। সেখানে এমনটাই দাবি করেছেন এই অভিনেত্রী।

মিমির স্থাবর সম্পত্তি এক কোটি ২৪ লাখ রুপি। এক কোটি ১৯ লাখ রুপি দামের একটি ফ্ল্যাট রয়েছে। পাশাপাশি ১৯ লাখ রুপির গাড়ির ঋণও রয়েছে এই অভিনেত্রীর নামে। স্থাবর সম্পত্তির মধ্যে তার হাতে আছে ২৫ হাজার রুপি ও ব্যাংকে আছে ৭১ লাখ ৯০ হাজার রুপি। আর বিভিন্ন ফান্ডে প্রায় ৫০ হাজার রুপির বিনিয়োগ করেছেন মিমি।

তৃণমূল প্রার্থী মিমি চক্রবর্তীর। ছবি: সংগৃহীত

এ ছাড়া মিমির কাছে স্বর্ণ রয়েছে ২৭১ গ্রামের মতো। ২০১৭-১৮ সালে তার আয় ছিল ১৫ লাখ ৩৮ হাজার রুপি। মিমি জানান, তার নামে কোনো মামলা নেই। পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রার্থী হিসেবে মিমির নাম ঘোষণা করে সবাইকে চমকে দেন।

এরপর মিমি বলেছেন, ‘আমি সকলের দোয়া প্রার্থী। দর্শকরা আমার সিনেমা ভালোবাসেন, তাই আমি জয়ের ব্যাপারে খুবই আশাবাদী। আমি সবসময় জনগণের জন্য কাজ করতে ভালোবাসি।’

তবে প্রচারণা শুরু করার পর বেশ কয়েকবার বিতর্কে জড়িয়ে পড়েছেন এই অভিনেত্রী। তার কয়েকটি মন্তব্য ঘিরে বেশ সমালোচনাও হয়েছে। এমনিতে যাদবপুর লোকসভা কেন্দ্রটি সব দিক থেকে আলাদা। এই আসনে ২০০৯ সালে প্রথম বাম বিরোধী প্রার্থী হিসেবে জিতেছিলেন কবির সুমন। তারপর হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক সুগত বসু তৃণমূলের টিকিটেই জিতে লোকসভায় যান। এবার মিমিকে প্রার্থী করেছে তৃণমূল।

সূত্র: এনডিটিভি, ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস

প্রিয় সংবাদ/রুহুল

আরো পড়ুন