প্রতীকী ছবি

নেটওয়ার্কে নজর দিলে ডাটার ব্যবহার বাড়ে, দাবি গ্রামীণফোনের

রাকিবুল হাসান
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১৫ এপ্রিল ২০১৯, ১৮:৫১
আপডেট: ১৫ এপ্রিল ২০১৯, ১৮:৫১

(প্রিয়.কম) দিন দিন ইন্টারনেটের ব্যবহার বাড়ছে। এই ইন্টারনেট কেন্দ্রিক অবকাঠামোর দিকে যে অপারেটর যত নজর দেবে, ব্যবহারকারীরা সেই অপারেটরকেই বেছে নেবেন। এ ছাড়া শক্তিশালী নেটওয়ার্ক কাভারেজ দিতে পারলে ডাটার ব্যবহারও বৃদ্ধি পাবে বলে দাবি করেছে বেসরকারি মোবাইল অপারেটর গ্রামীণফোন (জিপি)।

প্রতিষ্ঠানটি জানিয়েছে, বাংলা নববর্ষে উৎসবমুখর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকাসহ অন্যান্য এলাকায় নেটওয়ার্ক সক্ষমতা বৃদ্ধি করে অপারেটরটি। একই সঙ্গে অভিজ্ঞ একটি দল নেটওয়ার্ক সংক্রান্ত কাজে নিয়োজিত ছিল।

ফলাফলে দেখা যায়, বিগত বছরের তুলনায় বাংলা নববর্ষের প্রথম দিনে প্রায় দ্বিগুণ ডাটা বা ইন্টারনেট সেবা ব্যবহার করেছেন গ্রামীণফোনের গ্রাহকরা। সংখ্যায় যা গত বছরের তুলনায় ৭৩ শতাংশ বেশি।

প্রতিষ্ঠানটির দাবি, প্রতিবছর পহেলা বৈশাখের দিনে এ উৎসব উদযাপনে বিশেষ বিশেষ এলাকায় মানুষের ভিড় হয়। এ সময় দেশব্যাপী ভয়েস ও ডাটা সার্ভিসের ব্যবহারের চাহিদা অনেক বেশি থাকে। আর তাই গত বছরের ধারাবাহিকতায় এবারও গুরুত্বপূর্ণ এলাকাগুলোতে নেটওয়ার্ক শক্তিশালী করার উদ্যোগ নেয় গ্রামীণফোন।

এ প্রসঙ্গে গ্রামীণফোনের ডেপুটি চিফ ইক্সিকিউটিভ অফিসার ও চিফ মার্কেটিং অফিসার ইয়াসির আজমান বলেন, ‘গ্রাহকরা যেন তাদের ভালোবাসার মানুষের সঙ্গে সবসময় যোগাযোগ করতে পারেন এবং পহেলা বৈশাখের আনন্দ ভাগ করতে পারেন, সে লক্ষ্যে আগে থেকেই প্রস্তুতি নিয়ে রাখা জরুরি ছিল।’

‘অতীতের অভিজ্ঞতা থেকে আমরা জানি যে, এ ধরনের উৎসবের দিনগুলোতে নেটওয়ার্কের ওপর কি পরিমাণ চাপ সৃষ্টি হয়। আর তাই গ্রাহকদের উন্নত সেবা বজায় রাখতে আগে থেকেই প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিয়ে রেখেছিলাম আমরা। পাশাপাশি বিরূপ আবহাওয়া কিংবা বন্ধের দিনে বিরতিহীন যোগাযোগ ব্যবস্থা অব্যাহত রাখতে আমাদের নেটওয়ার্ক দল সর্বদা প্রস্তুত থাকে।’

ফোরজি সেবায় ইন্টারনেটের সর্বনিম্ন গতি দিতে ব্যর্থতার পরিচয় দেওয়া এই অপারেটরটির ডাটার ব্যবহার বৃদ্ধি পেলেও ডাটা ব্যবহারকারীরা পর্যাপ্ত গতি পেয়েছিলেন কি না, এ বিষয়ে জানা যায়নি।

প্রিয় প্রযুক্তি/রিমন

আরো পড়ুন