(প্রিয়কম) চকলেট খেতে ভালোবাসেন না এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া দুষ্কর! ছোট মানুষ থেকে শুরু করে বয়স্ক মানুষ, সকলেরই কমবেশী চকলেটের প্রতি ঝোঁক থাকে। কিটক্যাট, ডেইরী মিল্ক কিংবা বর্নভীলের ডার্ক চকলেট থেকে শুরু করে মার্শম্যালোর মতো ভিন্নধর্মী মজার মিষ্টান্ন খেতে চাইবেন সকলেই। এতোগুলো নামের সাথে যদি ফেরারো রশার (Ferraro Rocher) এর নাম সংযুক্ত করা হয় তবে তো কথাই নেই!

অন্যতম জনপ্রিয় এবং ক্রেতা পছন্দ এই চকলেট প্রথম আনে ইতালি ১৯৮২ সালে। ফেরারো রশারের এই বিখ্যাত চকলেট তৈরি করারা জন্যে হ্যাজেলনাট, মিল্ক চকলেট, চিনি, কোকো বাটার, গুঁড়া দুধ, পাম অয়েল এবং এর সাথে আরো বেশকিছু উপাদান প্রয়োজন হয়। চকলেট বানিয়ে বিক্রি করার শুরু থেকে এই প্রতিষ্ঠান তাদের চকলেট এর মান অক্ষুণ্ণ রেখেছেন বলেই ক্রেতারা এই চকলেট এতো বেশী পছন্দ করেন।

ফেরারো

কিন্তু আগস্টের ৩১ তারিখে সব হিসেবনিকেশ যেন একদম এলোমেলো হয়ে গেলো! র‍্যাচেল ভাইল নামের একজন আমেরিকান তার নিজস্ব ফেসবুক ওয়ালে শেয়ার করেন কিছু অবিশ্বাস্য ছবি এবং ভিডিও। তার শেয়ার করা ছবি এবং ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে তার হাতে ধরে রাখা ফেরারো রশার চকলেটের পুরু স্তর ভেদ করে বের হয়ে আসছে কিলবিলে পোকা, যাকে আমরা বলে থাকি শূককীট!

৩১ তারিখ রাতে র‍্যাচেল এবং তার রুমমেট দুইজনে মিলে ফেরারো রশারের একটি বক্স নিয়ে বসেছিলেন। বক্সের প্রায় অর্ধেক চকলেট খেয়ে ফেলার পর র‍্যাচেলের রুমমেট প্রথমে খেয়াল করেন যে চকলেটের ভেতরে কিছু একটা দেখা যাচ্ছে। এরপর র‍্যাচেলকে দেখালে দুইজনে মিলে নিশ্চিত হন যে চকলেটের ভেতরে রয়েছে পোকা! আরো ভয়াবহ ব্যপার হচ্ছে, এরপর যতগুলো নতুন চকলেট খোলা হয়েছে, প্রতিটার ভেতর থেকেই বের হয়ে এসেছে একই ধরণের কিলবিলে পোকা!

ক্ষুব্ধ র‍্যাচেল তার পোষ্টে বলেন, তিনি সবসময়ই এই চকলেট কিনে থাকেন। কিন্তু এই ঘটনার পর তিনি দ্বিতীয়বার আর এই চকলেট কেনার মতো ভুল করবেন না!

ফেরারো ২

ঘটনাটি পড়ে অনেকেই ভাবতে পারেন, হয়তো চকলেটের ,মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়ে গিয়েছিল বলেই এমন হয়েছে। কিন্তু র‍্যাচেল তার পোষ্টে একই সাথে লিখে দিয়েছেন এবং ছবি দিয়ে দিয়েছেন যেখানে বলা হচ্ছে, সেই চকলেট বক্সের মেয়াদ রয়েছে ৬ই মার্চ ২০১৮ পর্যন্ত!

 র‍্যাচেলের করা ফেরারো রশার চকলেটের ভেতরের পোকার ভিডিও দেখে নিতে পারেন এখানে! 

সম্পাদনা: কে এন দেয়া