(প্রিয়.কম) একজন মানুষ তার অনেকগুলো স্বপ্নর মধ্যে একটা স্বপ্ন নিয়ে কাজ করছেন নিজের মতো সাজিয়ে। বলছিলাম ফেসবুকের অন্যতম জনপ্রিয় এবং পরিচিত ভিন্নধর্মী গহনার পেইজ "A Book of Dreams" এর প্রতিষ্ঠাতার কথা। পেইজের নাম শুনে অনেকে চিনলেও এর পেছনের মানুষটাকে অনেকেই চেনেন না। সিনেমা দেখতে, সাজগোজ করতে, পুরনো দিনের বাংলা গান শুনতে, প্রাচীন সভ্যতার বই পড়তে, বিড়াল পুষতে এবং অনেক ঘুরে বেড়াতে পছন্দ করেন চঞ্চল প্রকৃতির যে মানুষটি, তার নাম রুকসানা আকতার

গহনা সেট ১

রুকসানা ইউনিভার্সিটি অব লিবারেল আর্টস বাংলাদেশ থেকে বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং করেছেন ইলেকট্রনিক্স এবং টেলিকমিউনিকেশনে। এরপরে এমএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং করেছেন কম্পিউটার সাইন্সে। তিনি ২০১১ সালে বিএসসি শেষ করার পর থেকেই চাকরী করছেন। গত সাড়ে চার বছর ধরে ইংল্যান্ডের University of Derby  এর বাংলাদেশি ক্যাম্পাসে আইটি বিষয়ে লেকচারার হিসাবে চাকরী করছেন। চলতি মাসেই রুকসানা’র স্বামীর বিসিএস চাকরী কারণে তার চাকরী ছেড়ে ঢাকার বাইরে চলে যেতে হয়েছে তাকে। বর্তমানে পেশায় তিনি একজন কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ার।

গহনা লকেট ২

এখন যদি আপনাকে প্রশ্ন করা হয়, আপনার জীবনের বিশেষ এবং আনন্দময় মুহূর্তগুলো আপনার কতোটা প্রিয়? যদি বলা হয় যে আপনার এই সকল প্রিয়, আনন্দময় এবং বিশেষ মুহূর্তগুলো দিয়ে তৈরি করা হবে আপনার পছন্দের ডিজাইনের গহনা তবে কেমন হবে? ঠিক এই ব্যতিক্রমধর্মী এবং ভিন্ন ধরণের চিন্তা থেকেই রুকসানা শুরু করেন তার "A Book of Dreams."

গহনা লকেট ৩

রুকসানা নিজে প্রচুর কেনাকাটা করেন অনলাইন থেকে। তবে এই কেনাকাটার সময়ে গহনার ক্ষেত্রে বেশিরভা সময়ে তিনি পছন্দের জিনিস খুঁজে পান না এবং পেলেও দামটা থাকে নাগালের বাইরে। তখন তার মনে হলো যে ভিন্নধর্মী গহনা তৈরি করা  দিয়ে শুরু করা যায় তার নিজের কাজ। কিছু ভিন্ন কাজ করার ইচ্ছা যেগুলো হবে সবার থেকে আলাদা।

আংটি

এই ভিন্নধর্মী গহনা বানানোর বুদ্ধিটা রুকসানার মাথায় আসে তখনই। সকলের বিশেষ মুহূর্তের ছবি দিয়ে যদি গহনা বানানো হয় তাহলে কেমন হবে? যেমন, বিয়ের ছবি দিয়ে আংটি, বাচ্চাদের ও পরিবারের ছবি দিয়ে গলার লকেট, নিজের ছবি দিয়ে কানের দুল ইত্যাদি!

গহনা ৪

তার এই ব্যতিক্রমধর্মী কাজের বিপরীতে তিনি যতটুকু সাড়া পাবেন বলে আশা করেছিলেন, আদতে তার থেকে অনেক বেশী সাড়া পেয়েছেন। রুকসানা বলেন, "আমি চেষ্টা করি সকলে ইচ্ছা অনুযায়ী জুয়েলারী করে দেওয়ার। কারণ যখন তারা খুশি হয়ে বলেন “আপু অনেক সুন্দর হয়েছে। যেমন চেয়েছিলাম তেমন করে দিয়েছেন”, তখন এটাকেই আমার সব থেকে বড় পাওয়া বলে মনে হয়।"

গহনা ৫

রুকসানা’র পরিবারের সকলে চাকরীজীবী হওয়া সত্ত্বেও অনেক তার ব্যবসার জন্যে অনুপ্রেরণা দিয়েছেন সকলেই, বিশেষ করে তার বাবা ও মা। তার স্বামীকে জানানোর পর অনেক সহযোগীতা করেছেন তাকে তার ব্যবসা নিয়েতো দূর পর্যন্ত আসতে। কিছুদিন আগে ঢাকার বাইরে চলে আসার পর ব্যবসার যাবতীয় সকল ব্যবস্থা করে দিয়ে তিনিই সবচেয়ে বেশী সাহায্য করেছেন রুকসানাকে। যেহেতু তিনি ভিন্নধর্মী গহনা তৈরি করে থাকেন তার সাথে তিনি কিছুটা ভিন্নধর্মী কাজও করে থাকেন। তার ব্যবসা থেকে যে লাভের অংশ আসে, তার একটা অংশ তিনি "কেয়ার ফর পওস" এ বিড়ালদের জন্যে দান করে থাকেন। শুধু তিনি একা নয়, তার কিছু ক্রেতাও তার সাথে দান করে থাকেন।

দুল গহনা

রুকসানার কাছে জানতে চাওয়া হয়েছিল কোন গহনাগুলো ক্রেতা খুব বেশী পছন্দ করে থাকেন? তিনি জানান, A Book of Dreams পেইজে নিজস্ব মুহূর্তের ছবি দিয়ে করানো গহনা সব থেকে বেশী পছন্দ করে থাকে ক্রেতারা। এগুলোর দাম হয়ে থাকে ৩০০ টাকা থেকে ১২০০ টাকা পর্যন্ত।

গহনা লকেট

এছাড়াও কিছু আংটি এবং লকেট আছে রুকসানা’র নিজের ডিজাইন করা। যার দাম পড়বে ১৫০ থেকে ৫০০ এর মধ্যে। এই ডিজাইনের গহনাগুলোও অনেক পছন্দ সকল ক্রেতার তবে সর্বাধিক বিক্রিত গহনা হচ্ছে “রাজকন্যা পেন্ডেন্ট”, “ময়ূর পেন্ডেন্ট”, “বুদ্ধ পেন্ডেন্ট” ও “জোধা আংটি”

আংটি

ইতোমধ্যে যতজন উদ্যোক্তার সাথে তার ব্যবসা নিয়ে কথা বলা হয়েছে, সকলেই জানিয়েছেন তার ব্যবসা করে গিয়ে কী ধরণের এবং কত প্রকার সমস্যার সম্মুখীন তাদের হতে হয়েছে প্রতি মুহূর্তে। তবে এক্ষেত্রে ভিন্ন সুরে কথা বললেন রুকসানা। তিনি জানান, "আমি ব্যবসা করতে গিয়ে খুব বেশী বাধার সম্মুখীন হইনি। মাঝে মাঝে জুয়েলারী মেকাররা সমস্যা করে সময় নিয়ে। এখন কিছুটা সমস্যা হচ্ছে ঢাকার বাইরে থেকে ব্যবসা করতে গিয়ে। চাইলেও ক্যাশ অন ডেলিভারি সার্ভিসটা দিতে পারিনা। সময় মত ডেলিভারী দেওয়া সম্ভব হয়না। তারপরেও চেষ্টা করে যাচ্ছি ভালো প্রোডাক্ট সুলভ মুল্যে দেওয়ার জন্য।"   

গহনা লকেট

প্রথমেই বলেছিলাম, রুকসানা’র অনেকগুলো স্বপ্নের মধ্যে একটি স্বপ্ন হল তার এই "A Book of Dreams." আর এই মুহূর্তে তার সব থেকে বড় স্বপ্ন হলো A Book of Dreams  কে একটি বাংলাদেশি ব্র্যান্ড হিসেবে দেশে ও বিদেশের সামনে প্রতিষ্ঠিত করা

গহনা লকেট

যদিও এখন তিনি শুধুমাত্র ভিন্নধর্মী গহনা নিয়েই কাজ করছেন, কিন্তু তার ইচ্ছা আছে পরবর্তিতে এর পরিধি আরো বড় করার। 

সম্পাদনা: রুমানা বৈশাখী