(প্রিয়.কম) বই-জ্ঞান অর্জনের বিকল্পহীন বাহন-মাধ্যম। প্রযুক্তির ছোঁয়ায় জীবন ও জগতের নানা বিষয় ও দিক আধুনিক হয়েছে। ডিজিটালাইজেশন হয়েছে নানা বিষয়-বস্তু এবং আয়োজন-উপলক্ষ। জ্ঞান অর্জনের বিকল্পহীন মাধ্যম বইয়ের প্রকাশনায় এবং এর বিভিন্ন উপায়-উপকরণেও আধুনিকতা ছোঁয়া লেগেছে কিন্তু ছাপানো বইয়ের গ্রহণযোগ্যতা ও ভালোবাসায় কোনো কমতি আসেনি। বই ছাপানো চলেছে, চলছে এবং চলবে... এ গতিতে কোনো ঘাটতি বা কমতি আসবে বলে মনে হয় না।

বাংলাদেশের বাংলা প্রকাশনা শিল্পের অন্যতম একটি অংশ জুড়ে রয়েছে ইসলামী বই। বছরের প্রায় ১২ মাসই বিভিন্ন বিষয়ভিত্তিক ইসলামী বই প্রকাশিত হয় এবং পাঠকের নানামুখী চাহিদা মিটাতে সারা দেশব্যাপী ছড়িয়ে যায়। দেশব্যাপী বই পৌঁছানোর আদি পদ্ধতির সঙ্গে যুক্ত হয়েছে আধুনিক যুগের আধুনিক ছোয়া। অনলাইনে বইসহ নানাবিদ পণ্য বিক্রি হচ্ছে এখন। বাংলাদেশে অনলাইনে বই বিক্রি করছে এমন প্লাটফর্মের তালিকাতে অন্যতম 'রকমারি.কম'। খুব অল্প সময়ে অনলাইনে বই বিক্রির একটি জনপ্রিয় প্লাটফর্ম হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে সক্ষম হয়েছে এই প্রতিষ্ঠানটি। রকমারি.কম থেকে প্রতিদিন প্রায় হাজার খানেক বই বিক্রি হয়। রকমারি.কমের বই বিক্রির এই তথ্যর অঙ্ক কষে সবচেয়ে বেশি বিক্রিত বইয়ে কিছু তালিকা প্রস্তুত করা হয়। এই তালিকার অন্যতম একটি ক্যাটাগরি হলো সর্বোচ্চ বিক্রিত ইসলামী বই।

চলুন তাহলে আর দেরি না করে দেখি কোন কোন ইসলামী বইগুলো রকমারি.কম থেকে এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি বিক্রি হয়েছে।

১. সর্বোচ্চ বিক্রিত ১০টি বাংলা ইসলামী বইয়ের তালিকার প্রথমস্থানে রয়েছে ‘প্যারাডক্সিক্যাল সাজিদ’। বইটি লিখেছেন আরিফ আজাদ। প্রকাশ করেছে গার্ডিয়ান পাবলিকেশনস। লেখক আরিফ আজাদ চট্টগ্রামে জন্মেছেন। তিনি মূলত একজন সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাক্টিভিস্ট। অমর একুশে গ্রন্থমেলা ২০১৭ -এ তার প্রথম প্রকাশিত গ্রন্থ ‘প্যারাডক্সিক্যাল সাজিদ’। ২০১৭ সালের একুশে গ্রন্থমেলাতে বইটি বেস্ট সেল বইয়ের তালিকাতে স্থান লাভ করতে সক্ষম হয়েছে। ‘প্যারাডক্সিক্যাল সাজিদ’ বইয়ের প্রত্যেকটা সিরিজে নাস্তিকদের কঠিন প্রশ্নের জবাবে কোরআন-হাদিসের আলোকে বিজ্ঞানের বিবর্তনের যৌক্তিক ব্যখ্যা নির্ভর একটি অনবদ্য গ্রন্থ। বইটি সম্পর্কে প্রকাশক বলেন, ‘প্যারাডক্সিক্যাল সাজিদ বইটিতে গল্প ও সাহিত্যরস দিয়ে অবিশ্বাসীদের নানা প্রশ্নের জবাব দেওয়া হয়েছে। আশা করি- বইটি পড়ে অবিশ্বাসীরাও ইসলাম নিয়ে চিন্তা করবেন’। রকমারি থেকে বইটি কিনতে এই লিঙ্কে ক্লিক করুন

২. ‘ইন দ্য হ্যান্ড অব তালেবান’- বইটির মূল লেখক- ইভন রিডলি আর বাংলাতে ভাষান্তর করেছেন- আবরার হামীম। সর্বোচ্চ বিক্রিত ১০টি বাংলা ইসলামী বইয়ের তালিকার দ্বিতীয়স্থানে রয়েছে এই বইটি। বইটি প্রকাশ করেছে নবপ্রকাশ। ২০০১ সালে আমেরিকার সন্ত্রাসবাদী যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর আফগানিস্তানে তালেবানের সংবাদ সংগ্রহ করতে গিয়ে একজন নারী সাংবাদিক অপহৃত হয়েছিলেন এবং পরবর্তীতে মুক্তি পেয়ে ইসলাম গ্রহণ করেছিলেন তিনি। ‘ইন দ্য হ্যান্ড অব তালেবান’ মূলত তার আত্মজীবনীর বয়ান। পুরো পশ্চিমাবিশ্বকে কাঁপিয়ে দিয়েছিলেন যা। ২০১৭ সালে প্রথম প্রকাশিত গ্রন্থটি খুব অল্প সময়েই বেস্ট সেল বইয়ের তালিকাতে স্থান অর্জন করে এবং বোদ্ধা পাঠক মহলেও বেশ সমাদৃত হয়। রকমারি থেকে বইটি কিনতে এই লিঙ্কে ক্লিক করুন

৩. ‘হ্যাপী থেকে আমাতুল্লাহ’- বইয়ের কভারে সাক্ষাৎকার গ্রহীতা হিসেবে সাদিকা সুলতানা সাকী নাম থাকলেও বইটির লেখক হিসেবে সব স্থানে নাম প্রদান করা হয়েছে আবদুল্লাহ আল ফারুক। বইটি প্রকাশ করেছে মাকতাবাতুল আজহার। ‘হ্যাপী থেকে আমাতুল্লাহ’ বইটি মূলত একজন সাবেক অভিনেত্রীর সাক্ষাৎকার। আনন্দঘন একটি সাক্ষাতে তাকে বিভিন্ন প্রশ্ন করা হয়েছে। তার পরিবার, ক্যারিয়ার, আগের জীবন, বর্তমান জীবন, সংসার, স্বামী, স্বপ্ন ও ভবিষ্যৎ-পরিকল্পনা সম্পর্কে নানামুখী প্রশ্ন করা হয়েছে এবং তিনি সবগুলো প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন অবলীলায়, অকপটে। বইটি ২০১৭ সালে প্রকাশিত হয়েছে। সর্বোচ্চ বিক্রিত ১০টি বাংলা ইসলামী বইয়ের তালিকার তৃতীয় স্থানে রয়েছে এই বইটি। রকমারি থেকে বইটি কিনতে এই লিঙ্কে ক্লিক করুন

৪. ‘জিন ও ফেরেশতাদের বিস্ময়কর ইতিহাস’- বইটির মূল লেখক আল্লামা জালালউদ্দিন সুয়ূতী (রহ.) ও  আল্লামা ইবনে কাছীর (রহ.)। বইটি বাংলাতে ভাষান্তর করে বইটি প্রকাশ করেছে মীনা বুক হাউস। মুসলমানরা, ‘জিন’ এর অস্তিত্বে বিশ্বাসী। কারন, মহানস্রষ্ঠা আল্লাহ মহান পবিত্র কোরআনের বহু জায়গায় জিনের কথা উল্লেখ করেছেন। প্রিয় নবীজির (সা.) হাদিসেও জিনবিষয়ক বহু আলোচনা পাওয়া যায়। এই বইটিকে জিন ও ফেরেশতাদের তথ্যবিষয়ক বিশ্বকোষও বলা যায়। সর্বোচ্চ বিক্রিত ১০টি বাংলা ইসলামী বইয়ের তালিকার চতুর্থ স্থানে রয়েছে এই বইটি। ২০১৫ সালে এই বইটির প্রথম সংস্করণ প্রকাশিত হয়। রকমারি থেকে বইটি কিনতে এই লিঙ্কে ক্লিক করুন

৫. ‘কোরআন ও বিজ্ঞানের দৃষ্টিতে পর্দা’- মুফতী মুহাম্মদ হাবীব ছামদানী রচিত একটি গবেষণাগ্রন্থ। সর্বোচ্চ বিক্রিত ১০টি বাংলা ইসলামী বইয়ের তালিকার পঞ্চম স্থানে রয়েছে এই বইটি। প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান মীনা বুক হাউস থেকে এই বইটিও প্রকাশিত হয়েছে। ১৯৯৯ সালে বইটি প্রথম প্রকাশিত হয় এবং ২০১৬ সালে বইটির দশম সংস্করণ প্রকাশিত হয়েছে। বইটি পড়লে আপনি ইসলামের পর্দার বিধান সম্পর্কে বিস্তারিত জানার পাশাপাশি পর্দার বিধানের বিজ্ঞানভিত্তিক বিভিন্ন দিক ও সমাধানের কথাও জানতে পারবেন। রকমারি থেকে বইটি কিনতে এই লিঙ্কে ক্লিক করুন

৬. ‘আধুনিক বিজ্ঞান : আল কুরআন ও স্রষ্টার অস্তিত্ব (১২১টি প্রমাণ সংবলিত)’- মুহাম্মদ আবুল হাসানাত রচিত কোরআন বিষয়ক একটি গবেষণাগ্রন্থ। বইটি প্রকাশ করেছে মঙ্গল প্রকাশনী। সর্বোচ্চ বিক্রিত ১০টি বাংলা ইসলামী বইয়ের তালিকার ষষ্ঠ স্থানে রয়েছে এই বইটি। ২০০৭ সালে এই বইটি প্রথম প্রকাশিত হয়েছে এবং ২০১৪ সালে দ্বিতীয় সংস্করণ। ‘আধুনিক বিজ্ঞান : আল কুরআন ও স্রষ্টার অস্তিত্ব’ গ্রন্থটিতে মূলত পবিত্র কোরআনের বিভিন্ন বর্ণনাকে বিজ্ঞান ও যুক্তির আলোকে ব্যাখ্যা করা হয়েছে। রকমারি থেকে বইটি কিনতে এই লিঙ্কে ক্লিক করুন

৭. ‘রাসুলুল্লহ (সা.) -এর নামাজ’ (১ম ও ২য় খ- একত্রে)। বইটি মূলত নামাজ শিক্ষার একটি অনন্য আয়োজন। এই গ্রন্থটির মূল রচয়িতা আল্লামা মুহাম্মদ নাসীরুদ্দীন আলবানী। গ্রন্থটি অনুবাদ করেছেন মাওলানা আবু নাঈম এবং সম্পাদনা করেছেন মাওলানা দাউদ ইবরাহিম। সর্বোচ্চ বিক্রিত ১০টি বাংলা ইসলামী বইয়ের তালিকার সপ্তম স্থানে রয়েছে এই বইটি। বইটি প্রকাশ করেছে মীনা বুক হাউজ। কোনো মাজহাবকে অন্ধ অনুসরণ না করে; কেউ যদি সহিহ সুন্নাহভিত্তিক রাসূল (সা.) যেভাবে সালাত বা নামাজ আদায় করেছেন সেভাবে আদায় করতে চান, তবে তার এই বইটি পড়া অত্যন্ত জরুরি। ২০০৩ সালে বইটি প্রথম প্রকাশিত হয়েছে এবং ২০১৬ সালে এর নবম সংস্করণ প্রকাশিত হয়েছে। রকমারি থেকে বইটি কিনতে এই লিঙ্কে ক্লিক করুন

৮. ‘মহাবীর খালিদ বিন ওয়ালিদ এর ইয়ারমুক যুদ্ধ’- বইটি মূলত ইসলামের বীর সেনাপতি খালিদ বিন ওয়ালিদ কর্তৃক পরিচালিত ইয়ারমুকের যুদ্ধের বর্ণনার পাশাপাশি তার জীবনীতথ্য দ্বারা অলঙ্কৃত। বইটি রচনা করেছেন মেজর মো. দেলোয়ার হোসেন, এসপিপি, পিএসসি। ২০১৭ সালে বইটি প্রকাশিত হয়েছে এবং খুব অল্প সময়ে সর্বোচ্চ বিক্রিত ১০টি বাংলা ইসলামী বইয়ের তালিকার অষ্টম স্থান অধিকারে সক্ষম হয়েছে। এই বইটির রচয়িতা ২০০০ সালে সেনাবাহিনীতে যোগ দেন। তিনি ডিফেন্স সার্ভিসেস কমান্ড অ্যান্ড স্টাফ কলেজের একজন গ্র্যাজুয়েট। তার লেখা ‘আধুনিক দৃষ্টিকোণে সানজুর দ্য আর্ট অব ওয়ার’ বইয়ের জন্য তিনি ‘সেনাপারদর্শিতা’ পদক প্রাপ্ত হয়েছেন। এই বইটি প্রকাশ করেছে নালন্দা প্রকাশনী। রকমারি থেকে বইটি কিনতে এই লিঙ্কে ক্লিক করুন

৯. ‘প্রচলিত ভুল’- মাওলানা মুহাম্মাদ আবদুল মালেক রচিত অনবদ্য একটি গ্রন্থ। বইটি মূলত মাসিক ‘আল-কাউসার’ পত্রিকাতে প্রকাশিত প্রচলিত ভুল শিরোনামে মাওলানা আব্দুল মালেক সাহেবের কলামের সংকলন। এখানে তিনি মুসলিম সমাজে প্রচলিত বিভিন্ন জাল হাদিস, মওজু তথ্য তথা ভুল ঘটনা, ভুল উচ্চারণ, ভুল মাসআলাগুলোকে সন্নিবেশিত করেছেন। যাতে করে মুসলিম উম্মাহ এসব ভুল থেকে সংশোধিত হয়ে সঠিক পথে পরিচালিত হতে পারে। সর্বোচ্চ বিক্রিত ১০টি বাংলা ইসলামী বইয়ের তালিকার নবম স্থানে রয়েছে এই বইটি। মারকাযুদ দাওয়াহ আল ইসলামিয়াহ ঢাকার প্রকাশনা বিভাগ থেকে বইটি ২০১২ সালে প্রথম ও ২০১৬ সালে দ্বিতীয় সংস্করণ প্রকাশিত হয়েছে। রকমারি থেকে বইটি কিনতে এই লিঙ্কে ক্লিক করুন

১০. ‘ডাবল স্ট্যান্ডাড’- ড. শামসুল আরেফীন রচিত একটি সাড়া জাগানো গ্রন্থ। বইটি প্রকাশ করেছে মাকতাবাতুল আজহার। বইটি যেনো ইসলামের রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক, সামরিক বিভিন্ন প্রেক্ষাপটে প্রায়োগিক ক্ষেত্রকে তুলে ধরতে তথ্য, বিশ্লেষণ, যুক্তিতর্কের বিচারে এক অনন্য সংযোজন। দিশেহারা প্রজন্মকে ইসলামের সঠিক বার্তাটি যুগের হিসেবে সুন্দর যৌক্তিক উপায়ে গল্প আকারে তুলে ধরার নতুন নিমার্ণ। মোট ১১টি অধ্যায় ১১টি ছোটগল্পে সহকারে সাজানো আছে, যেকোন বক্তব্যের সাথেই রেফারেন্স দেয়া আছে। সর্বোচ্চ বিক্রিত ১০টি বাংলা ইসলামী বইয়ের তালিকার দশম স্থানে রয়েছে এই বইটি। রকমারি থেকে বইটি কিনতে এই লিঙ্কে ক্লিক করুন

সূত্র : রকমারি.কম

প্রিয় ইসলাম/শামীমা সীমা