(প্রিয়.কম) সিলেট রেলপথ আগের তুলনায় দিনে দিনে হয়ে উঠছে আরও অনিরাপদ। তাই সতর্কতা অবলম্বন এখন অনিবার্য। ভ্রমণকারীরা ভালোবাসেন প্রকৃতিকে আর তাদের এই ভালোবাসার কারণেই প্রকৃতির সৌন্দর্য থাকে তাদের মনোযোগের কেন্দ্রে। ট্রেনের জানালা দিয়ে মোবাইল, ক্যামেরা বাড়িয়ে ছবি তোলা, ভিডিও করা তো চাই-ই চাই। এই সুযোগটাই নেয় ছিনতাইকারীরা।

হাতে রামদা, লাঠি নিয়ে গাছের আড়ালে লুকিয়ে থাকে এরা। ট্রেন যখন বন বা এমন কোনো ঝোপ ঝাড়ের এলাকা পার করে বিপদ তখনই থাকে বেশি। আর প্রকৃতিপ্রেমীরা ছবি তুলতে ক্যামেরাও হাতে নেন এসব জায়গাতেই। এসব সন্ত্রাসী এতই ভয়ংকর যে তারা আপনার মোবাইল বা ক্যামেরা হাতিয়ে নেওয়ার জন্য হাত কেটে পর্যন্ত ফেলতে পারে।

জেনে নিন কিছু বাস্তব অভিজ্ঞতা-

আরিফুজ্জান শান্ত ট্রাভেলার্স অব বাংলাদেশ হেল্প লাইন নামক পাবলিক গ্রুপে শেয়ার করেছেন তার বন্ধুর অভিজ্ঞতা। শ্রীমঙ্গলে ট্রেন প্রবেশের পর প্রকৃতির সৌন্দর্যে মোহিত হয়ে ভিডিও করতে শুরু করেন বন্ধুটি। লাঠি হাতে হঠাৎ একজন তার হাতে আঘাত করার চেষ্টা করে। অল্পের জন্য বেঁচে যান তিনি।

আরিফুজ্জামানের পোস্টের কমেন্টে মিনার মুন্না লেখেন "আপনার কলিগের ভাগ্য ভালো যে বাঁশের লাঠি দিয়ে বাড়ি দিয়েছে। আমার পরিচিত বড় ভাইয়ের হাতের ৩টা আঙুল কাটা পরে ধারালো অস্ত্রের আঘাতে।" আসিফ খান প্রান্ত লেখেন "আখাউড়া স্টেশন থেকে ট্রেন তখন মাত্র ছেড়েছে। তখন অল্প গতি, সেই সময় আমার মোবাইল পুরো টান দিয়ে দিয়েছে কিন্তু আমার এক বন্ধু পাশের সিট থেকে সেই চোরের মুখে এক ঘুষি মারে। সাথে সাথে ছেড়ে দিয়েছে। নাহলে আমার মোবাইলও প্রায় চলে গেছিলো।"

আরেক ভ্রমণকারী তানভির আহমেদ বলেন, "গত ১০ সেপ্টেম্বর, ভারত থেকে ভ্রমণ শেষে আসি বাংলাদেশে। বাস আমাদের নামিয়ে দেয় রাত ৩.৩০ বাংলামোটর মোড়ে, সেখান থেকে আমরা দুইজন রিকশায় করে রওয়ানা হই মগবাজার শাহশাহ্ বাড়ির উদ্দেশ্যে। পথিমধ্যে বাংলাদেশ রেডক্রিসেন্ট এর সামনে আসলে, ৩টি ছেলে (বয়স ১৫-১৭) আমাদের পথ রোধ করে, চাকু বের করে। অথচ ২০ ফুট পিছনেই একটি পুলিশের গাড়ি ছিল। আমি পুলিশ পুলিশ বলে চিৎকার করতে থাকি। আমার চাচা সাহস করে ধমক দিয়ে বলে - 'এই তুই আমারে চিনিস না? আমি এই বাড়ির ছেলে।' পরে ইতস্তত করে সরে দাঁড়ায়। ফলে রিকশাওয়ালা তাড়াতাড়ি রিকশা টান দেয়।"

জান্নাতুল ফেরদৌস অন্তি জানান "কিছুদিন আগে সিলেট থেকে ফেরার পথে আমিও ছিনতাইয়ের শিকার হই। আমার ব্যাগের বেল্ট আমার হাতে পেঁচানো ছিলো। ট্রেনের উপর থেকে এসে জানালা দিয়ে আমার ব্যাগ টান দিয়ে নিয়ে গেছে!"

দেখা যাচ্ছে, শুধু সিলেট রেলপথ নয়, দেশের প্রতিটি অঞ্চলই হয়ে উঠেছে ভয়াবহ বিপজ্জ্বনক। তাই সতর্ক হোন। আপনার মালামাল যতটা সম্ভব কাছে রাখুন। ট্রেন হোক বা বাস, জানালার ব্যাপারে খেয়াল রাখুন। অন্ধকার জায়গা পেরনোর সময় জানালা বন্ধ করে দিন। এরকম ঘটনার সম্মুখীন হলে অবশ্যই স্থানীয় পুলিশকে জানান।

তথ্যসূত্রঃ টিওবি হেল্পলাইন

সম্পাদনাঃ ড. জিনিয়া রহমান।

প্রিয় ট্রাভেল সম্পর্কে আমাদের লেখা পড়তে ভিজিট করুন আমাদের ফেসবুক পেইজে। যে কোনো তথ্য জানতে মেইল করুন travel@priyo.com এই ঠিকানায়। ভ্রমণ বিষয়ক আপনার যেকোনো লেখা পাঠাতে ক্লিক করুন এই লিংকে- https://www.priyo.com/post