(প্রিয়.কম) একটি শিশু সন্তান জন্মগ্রহণ করার পর সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ও প্রধান যে কাজটি নিয়ে বাবা-মাসহ পরিবারের সদস্যরা চিন্তিত থাকেন সেটা হলো- নবাগত শিশুর সুন্দর অর্থবহ একটি নাম রাখা। ইসলাম এই বিষয়টিকে বেশ গুরুত্ব দিয়েছে। ইসলাম ধর্মে শিশুর অর্থবহ নাম রাখার বিষয়টি গুরুত্বপূর্ণ কারণ কেয়ামতের ময়দানে আল্লাহ মহান তার বান্দাদেরকে নিজ নাম এবং তার পিতার নাম ধরে ডাকবেন। এই মর্মে হাদিস শরিফে বর্ণিত আছে, ‘হজরত আবু দারদা (রা.) থেকে বর্ণিত, রাসূল (সা.) বলেছেন, কেয়ামতের দিন তোমাদের নাম এবং তোমাদের পিতার নাম ধরে ডাকা হবে। অতএব তোমাদের নামগুলো সুন্দর করে রাখ। (আবু দাউদ, বায়হাকী ও মুসনাদে আহমদ)

একটি সন্তান জন্মগ্রহণ করার পর পিতা-মাতাসহ সবাই অনুসন্ধানে থাকেন কী ভাবে আনকমন ও অর্থবহ একটি নাম রাখা যায়। প্রযুক্তির এই যুগে এসে বিভিন্ন সার্চ ইঞ্জিন ব্যবহার করে অনেকেই ইন্টারনেটে ভালো সুন্দর ও অর্থবহ নাম খুঁজে থাকেন। ইন্টারনেটে মুসলিম শিশুর অর্থবহ নাম খোঁজাকে জরিপে এনে একটি তালিকা তৈরি করা হয়েছে। তালিকাটিতে মানুষের সার্চ করা সবচেয়ে জনপ্রিয় ২০টি সুন্দর অর্থবোধক নাম উঠে এসেছে। মুসলিম ছেলে শিশু সন্তানের সবচেয়ে জনপ্রিয় ১০টি এবং মুসলিম কন্যা সন্তানের সবচেয়ে জনপ্রিয় ১০টি- মোট বিশটি নামকে অর্থসহ তালিকাবদ্ধ করা হয়েছে। চলুন তাহলে আর দেরি না করে আমরাও জেনে নেই মুসলিম শিশুর সবচেয়ে জনপ্রিয় ২০টি সুন্দর অর্থবোধক নাম ও তার অর্থ।   

মুসলিম ছেলে শিশু সন্তানের জন্য নির্বাচিত সবচেয়ে জনপ্রিয় ১০টি সুন্দর অর্থবোধক নাম-

১. বাংলা নাম : আয়ান, ইংরেজি বানান : Ayaan, অর্থ : আল্লাহর পক্ষ থেকে দান করা উপহার, উপঢৌকন বা পুরস্কার। মূল শব্দটি আরবি।  

২. বাংলা নাম : হামজাহ, ইংরেজি বানান : Hamza, অর্থ : বাহাদুর, শক্তিশালী, সিংহ। মূল শব্দটি আরবি। রাসূল (সা.)-এর চাচার নাম ছিলো হামজাহ।

৩. বাংলা নাম : আলী, ইংরেজি বানান : Ali, অর্থ : উচ্চ, একজন উর্ধ্বমুখী, মূল শব্দটি আরবি। ইসলামের চতুর্থ খলিফার নাম ছিলো হজরত আলী (রা.)।  

৪. বাংলা নাম : উসমান, ইংরেজি বানান : Usman, অর্থ : একটি সুন্দর কলম। মূল শব্দটি আরবি। প্রসিদ্ধ সাহাবী, ইসলামের তৃতীয় খলিফার নাম ছিলো হজরত উসমান (রা.)।

৫. বাংলা নাম : ফাইজান, ইংরেজি বানান : Faizan, অর্থ : অনুগ্রহ, আনুকূল্য এবং পানির প্রবহমান ধারা। মূল শব্দটি আরবি।

৬. বাংলা নাম : জাইন, ইংরেজি বানান : Zain, অর্থ : সৌন্দর্য, চমৎকার। মূল শব্দটি আরবি।

৭. বাংলা নাম : জিশান, ইংরেজি বানান : Zeeshan, অর্থ : উচু মর্যাদাশালী, গৌরব। মূল শব্দটি ফারসি।

৮. বাংলা নাম : বিলাল বা বেলাল, ইংরেজি বানান : Bilal, অর্থ : আক্ষরিক অর্থ ভিজানো বা স্যাতস্যাতে। মূল শব্দটি আরবি। প্রসিদ্ধ সাহাবী ইসলাম ও রাসূল (সা.)-এর প্রসিদ্ধ মুয়াজজিনের নাম ছিল হজরত বেলাল হাবশী (রা.)।

৯. বাংলা নাম : নোমান, ইংরেজি বানান : Noman, অর্থ : উপদেশ বা উপদেশদাতা। মূল শব্দটি আরবি। ইসলামের ইতিহাসের অনেক বিখ্যাত ব্যক্তিত্বদের নাম ছিলো নোমান। প্রসিদ্ধ জার মাজহাবের অন্যতম একটি মাজহাব- হানাফি মাজহাবের প্রাণপুরুষের নাম ছিল নোমান।

১০. বাংলা নাম : সানা, ইংরেজি বানান : Sana, অর্থ : প্রশংসা, জ্যোতি বা প্রতিভা। মূল শব্দটি আরবি।

মুসলিম কন্যা শিশু সন্তানের জন্য নির্বাচিত সবচেয়ে জনপ্রিয় ১০টি সুন্দর অর্থবোধক নাম-

১. বাংলা নাম : আয়েশা, ইংরেজি বানান : Ayesha, অর্থ : নারী জীবন, শান্তি ও আরামের সাথে জীবন যাপণকারী। মূল শব্দটি আরবি। নবী মুহাম্মদ (সা.) -এর প্রিয় স্ত্রী নাম ছিল হজরত আয়েশা।

২. বাংলা নাম : আইজা, ইংরেজি বানান : Aiza, অর্থ : ইজ্জতওয়ালা, সম্মানিত। মূল শব্দটি আরবি। তবে কোনো কোনো ভাষাবিদ বলেছেন এটি মূলত ফারসি শব্দ।

৩. বাংলা নাম : ইশাল, ইংরেজি বানান : Eshaal, অর্থ : জান্নাতের একটি ফুলের নাম ইশাল। এ শব্দটির মূল আরবি।

৪. বাংলা নাম : মারইয়াম, ইংরেজি বানান : Mariam, অর্থ : পবিত্র, সমুদ্রের তারকা। মূল শব্দটি আরবি। হজরত ঈসা (আ.)-এর মায়ের নাম ছিল হজরত মারইয়াম (আ.)।

৫. বাংলা নাম : আনাবিয়া, ইংরেজি বানান : Anabia, অর্থ : জান্নাতের একটি দরজার নাম, আল্লাহ মহানের দিকে ফিরে আসা। মূল শব্দটি আরবি।

৬. বাংলা নাম : হানিয়া, ইংরেজি বানান : Haniya, অর্থ : বিশ্রামের স্থান, সুখী অথবা খুশি। মূল শব্দটি আরবি।

৭. বাংলা নাম : শাজিয়াহ, ইংরেজি বানান : shazia, অর্থ : বিরল, দূর্লভ। সহজে পাওয়া যায় না এমন জিনিস বা বস্তু। মূল শব্দটি আরবি।

৮. বাংলা নাম : সাবা, ইংরেজি বানান : Saba, অর্থ : নরম বাতাস, ভোরের বাতাস, ভোর। মূল শব্দটি আরবি।

৯. বাংলা নাম : ইকরা, ইংরেজি বানান : Iqra, অর্থ : পড়ার আদেশ বা হুকুম, আবৃত্তি করা। মূল শব্দটি আরবি। পবিত্র কুরআনের প্রথম আয়াতের প্রথম শব্দ ইকরা।

১০. বাংলা নাম : হিবা, ইংরেজি বানান : Hiba, অর্থ : উপহার, পুরস্কার, উপঢৌকন। মূল শব্দটি আরবি।

সূত্র : ওয়াটসদ্যবেস্ট.কম

প্রিয় ইসলাম/গোরা