পাঠকের প্রশ্ন : আপু, সালাম জানবেন। আমি যা লিখবো আমি জানিনা এমন কথা আপনাকে আগে কেউ লিখেছে কিনা। আপু, আমি মেয়ে হয়ে আরেকটি মেয়ের প্রেমে পড়ে গিয়েছি। আপনি হয়তো জেনে খুব ঘৃণা করবেন, রাগ করবেন। কিন্তু এইটা সত্যি। আমি এমন একজন মানুষের প্রেমে পড়ে গিয়েছি যিনি বয়সে আমার অনেক বড়। উনি আমাদের কলেজে পড়ান। 

ছোটবেলা থেকেই আমি একা একা বড় হয়েছি। আমার মা-বাবা দুজনেই চাকরি করেন, মায়ের পোস্টিং ঢাকার বাইরে। আমি, আব্বু ও আমার ছোট ভাই ঢাকায় থাকি। আমার কেন যেন মনে হয় আমার আম্মুর সাথে আব্বুর সম্পর্ক ভালো না। কারণ আম্মু ঢাকায় আসে খুব কম, আমরাও সিলেট যাই খুব কম। অনেক সময় ঈদের দিনেও আব্বু আমাদের দুই ভাই-বোনকে নিয়ে ঈদ করে। আব্বু- আম্মু  ঢাকায় আমাদের ফুপু থাকেন। আম্মুর সব দায়িত্ব ফুপু পালন করেন আমাদের প্রতি। ঢাকায় এলে আম্মু আমার সাথে ঘুমায়, আব্বুর সাথে আম্মুর কথাবার্তাও কেমন জানি লাগে। আম্মুর সাথে আমার বেশি কথা হয় না, আব্বুকে খুব ভয় পাই। ফুপুকে একবার এই বিষয়ে জিজ্ঞেস করেছিলাম কিন্তু উনি কোন জবাব দেয় নাই। 

আমি যাকে ভালবাসি আপু, উনি কলেজে আমাদের বোটানি পড়ান। উনি আমাকে অনেক আদর করেন। প্রথম দিন থেকেই করেন। আমি উনার বাসায় প্রাইভেট পড়তে গেলে অন্যদের পড়ানো শেষেও আমাকে পড়ান। প্রত্যেকদিনই নাস্তা বানিয়ে খাওয়ান। আমি কেমন আছি, বাসায় কী অবস্থা, আমার কিছু লাগবে কিনা জিজ্ঞেস করেন। ম্যামের একটা ছেলে আছে ৬ বছরের, উনার স্বামী বাংলাদেশের বাইরে থাকে। ম্যামের সাথে আমি কয়েকবার বেড়াতেও গিয়েছি গোপনে। ম্যাম আমাকে বলেছেন যে উনি আমাকে খুব পছন্দ করেন। ম্যাম বলেছেন উনার স্বামীর সাথে উনি সুখী না, স্বামী উনার কোন খোঁজ রাখেন না। ম্যাম নিজের জীবনের অনেক কথা বলে আমার কাছে কান্না করেছেন, আমিও আমার জীবনের সব কথা তাঁকে বলেছি। ম্যাম বলেছেন যে উনি আমাকে ভালোবাসেন। স্বামীর সাথে নয়, উনি আমার সাথেই নিজের জীবন কাটাতে চান। উনি আমাকে দিয়ে এই ওয়াদাও করিয়েছেন যে আমি আজীবন তাঁর পাশে থাকবো। আমি জানি না আপু কেন করেছি, কিন্তু সেই ওয়াদা আমি উনার পীড়াপীড়িতে করে ফেলেছি। 

 দুজন মেয়ের মাঝে কি ভালোবাসা হয়, আপু? এটা কি সম্ভব? আমি জানি না। 

কিন্তু দিন দিন ম্যামের প্রতি আমি আরও অনেক বেশি আকৃষ্ট হয়ে পড়ছি।  উনি যেভাবে কথা বলেন আমার সাথে, উনি যেভাবে আমাকে সাপোর্ট করেন, আমার সব কথা শোনেন সবই আমার খুব ভালো লাগে। আমার ভয় হয়, আমি উনার কথা না শুনলে উনি হয়তো আমাকে আর ভালো চোখে দেখবেন না। 

আপু, আমি কি অস্বাভাবিক হয়ে যাচ্ছি? নাহলে নিজে মেয়ে হয়ে আরেকজন মেয়েকে কেন ভালো লাগবে আমার? আমি কি লেসবিয়ান হয়ে গেছি? আমার বান্ধবীদের সবারই ছেলেদের সাথে রিলেশন আছে, আমার জীবনে কিন্তু কেউ নেই আপু। এমনকি কারো সাথে ফেসবুকে বা ফোনেও কথা হয় না আমার। শুধু ম্যামের কাছে গেলে কী যে হয়ে যায়, উনি যা বলেন সবই করতে ইচ্ছা করে। উনার চোখে পানি দেখলে আমিও কষ্ট পাই। এটা কি ভালোবাসা আপু? এইটা কি প্রেম? 

আমার নিজেকে মাঝে মাঝে খুব ঘেন্না লাগে। মনে হয় আমি কেন নরমাল না। আমার বাসায় কেউ এই ব্যাপারটা জানতে পারলে কী হবে আমি ভাবতেও পারি না। মরে যাওয়া ছাড়া কোন উপায় থাকবে না আমার। এমন কেউ নেই যাকে আমি এই কথা বলতে পারি। আপনাকে বললাম, আপু। প্লিজ সমাধান দিন।

প্রশ্নটি আমাদের ফেসবুক পেজে করেছেন : নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন

চাইলে আপনিও যেকোনো প্রশ্ন করতে পারেন আমাদের কাছে। আর নিজের নাম গোপন রাখতে চাইলে প্রশ্ন পাঠাতে পারেন পেজের ইনবক্সে, সঙ্গে লিখে দিতে হবে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক। আমাদের ফেসবুক পেজ দেখতে এখানে ক্লিক করুনআর উত্তর জানতে এখানে ক্লিক করুন

স্বাস্থ্য হোক বা সৌন্দর্য, খেলা হোক বা সিনেমা, দাম্পত্য বা প্রেম, অফিসের সমস্যা কিংবা আইনি, বিজ্ঞান হোক বা রাজনীতি, স্কুল-কলেজ হোক বা সামাজিক ও পারিবারিক কোনো সমস্যা। যে কোনো সমস্যা লিখে জানান আমাদের। আপনার হয়ে সমস্যার সমাধান খুঁজে বের করবো আমরা।

 আপনার প্রশ্ন, বিশেষজ্ঞের উত্তর।