(প্রিয়.কম) মিয়ানমারের রাখাইনে সরকারি বাহিনীর চলমান নির্মম নির্যাতনের হাত থেকে পালিয়ে বাঁচতে বাংলাদেশে আসা রোহিঙ্গাদের কাছ থেকে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করার কারণে দুটি নৌকা জ্বালিয়ে দিয়েছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)।

১২ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার রাত ১১টায় কক্সবাজারের টেকনাফ শাহপরীর দ্বীপ এলাকায় মিয়ানমার সীমান্তের জেটির পাশে এ ঘটনা ঘটে।

অভিযোগ উঠেছে, এক শ্রেণির মানুষ বাংলাদেশে রোহিঙ্গাদের অনুপ্রবেশকে পুঁজি করে নৌকা পারাপারে জনপ্রতি ৪ হাজার থেকে ৫ হাজার টাকা ভাড়া নিচ্ছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, পালিয়ে আসা রোহিঙ্গা নাগরিকদের থেকে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করার কারণে নৌকা জ্বালিয়ে দিয়েছেন বিজিবি সদস্যরা।

রোহিঙ্গাদের অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের অভিযোগে নৌকা জ্বালিয়ে দেওয়া হয়েছে।

রোহিঙ্গাদের অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের অভিযোগে নৌকা জ্বালিয়ে দেওয়া হয়েছে। ছবি: প্রিয়.কম

প্রসঙ্গত, মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে গত ২৫ আগস্ট থেকে নতুন করে সেনা অভিযান শুরু হয়। এ অভিযানে এখন পর্যন্ত ৪০০ জনকে হত্যা এবং ২৬০০ ঘরবাড়ি পুড়িয়ে দেওয়ার কথা শিকার করেছে দেশটির সেনাবাহিনী। জাতিসংঘ বলছে, অক্টোবরের পর এ পর্যন্ত সব মিলিয়ে প্রায় দেড় লাখ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে ঢুকেছে। প্রতিদিনই এ সংখ্যা বাড়ছে। 

মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের সংখ্যা এবার ৩ লক্ষ ৭০ হাজার ছাড়িয়েছে বলে ধারণা করছে জাতিসংঘ। ২০১৬ সালের অক্টোবর থেকে মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে সহিংসতার শিকার হয়ে তারা ধাপে ধাপে বাংলাদেশে প্রবেশ করেন বলে জানিয়েছেন জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা ইউএনএইচসিআরের মুখপাত্র ভিভিয়ান তান

এর আগে জাতিগত দ্বন্দ্বের জেরে ২০১৬ সালের অক্টোবর মাসে দেশটির সেনাবাহিনীর চালানো একই রকম অভিযানে কয়েকশত রোহিঙ্গা নিহত হয়। জ্বালিয়ে দেওয়া হয় হাজারো ঘরবাড়ি। ওই অভিযানের বর্বরতায় বাধ্য হয়ে অন্তত ৮০ হাজার রোহিঙ্গা পার্শ্ববর্তী বাংলাদেশে শরণার্থী হিসেবে আশ্রয় গ্রহণ করে।

প্রিয় সংবাদ/শিরিন