(প্রিয়.কম) চলছে সেলফির যুগ। সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুক, টুইটার, ইনস্টাগ্রাম, গুগল প্লাস খুললেই দেখা যায় নানা ধরনের সেলফি। আর এর সাথে তাল মিলিয়ে চলতে হলে আপনার প্রয়োজন একটি ভালো মানের সেলফি মোবাইল। অনেক স্মার্টফোন প্রতিষ্ঠানই তাদের ফোনকে সেলফির জন্য সেরা বলছে। তবে চলুন জেনে নেওয়া যাক ২০১৭ সালের সেপ্টেম্বর মাসের সেরা সেলফি ফোন কোনগুলো।

অপো এফ৩ প্লাস

বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশের বাজারেও ক্যামেরার জন্য জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে অপোর নতুন ডুয়েল সেলফি ক্যামেরার অপো এফ৩ প্লাস সেলফি এক্সপার্ট স্মার্টফোন। মে মাসে ফোনটি দেশের বাজারে উন্মুক্ত হয়। এছাড়া এই ফোনটি হচ্ছে অপোর প্রথম ১২০ ডিগ্রি ওয়াইড অ্যাঙ্গেলের ডুয়েল সেলফি ক্যামেরা সমৃদ্ধ ফোন। অপোর এফ৩ প্লাসের সামনে ১৬ ও ৮ মেগাপিক্সেলের দুটি ক্যামেরা এবং পেছনে ১৩ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা দেওয়া হয়েছে। অপোর এই ফ্ল্যাগশিপ ফোনটি গ্রুপ সেলফি প্রবণতাকে মাথায় রেখে তৈরি করা হয়েছে।

ডিভাইসটিতে ব্যবহৃত হয়েছে দ্রুতগতির অক্টা-কোর প্রসেসর ও ৪ জিবি র‍্যাম এবং ৬৪ জিবি রম। এই হ্যান্ডসেটটির ব্যাটারি ৪০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার যা ২৮৪ ঘন্টার বেশি সময় স্ট্যান্ডবাই ব্যবহার করা যাবে।

ভিভো ভি৫ প্লাস

অপো এফ৩ প্লাসর মতো ভিভো ভি৫ প্লাসও একটি সেলফি এক্সপার্ট স্মার্টফোন। এই ফোনটিতে ২০ মেগাপিক্সেলের (এমপি) রিয়ার ক্যামেরা ব্যবহার করা হয়েছে যা আপনাকে অন্যান্য সেলফি স্মার্টফোনের থেকে অনেক ভালো সেলফি তুলতে সাহায্য করবে বলে প্রতিষ্ঠানটির দাবি। ফোনটির সামনে থাকছে ২০ এবং ৮ মেগাপিক্সলের (এমপি) দুইটি ক্যামেরা। যেটির সাহায্যে আপনি ঝকঝকে সেলফি তুলতে পারবেন। এই ফোনটিতেও রয়েছে ৪ জিবি র‍্যাম এবং ৬৪ জিবি রম। আর ব্যাটারি ৩১৬০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার।

জিওনি এ১

চীনা প্রতিষ্ঠান জিওনি গত জুলাইয়ে ভারতের বাজারে তাদের ফ্ল্যাগশিপ ফোন এ১ প্লাস উন্মুক্ত করেছে। ৪ হাজার ৫৫০ এমএএইচ ব্যাটারির এই ফোনের দাম নির্ধারণ করা হয়েছে ২৯ হাজার ৯৯৯ রুপি যা বাংলাদেশি টাকায় ৩৭ হাজার ৭০০ টাকা।

জিওনি এ১ প্লাস ফোনটিতে ডুয়েল রিয়ার ক্যামেরা ব্যবহার করা হয়েছে উন্নত মানের ছবি তোলার জন্য। রয়েছে ১৬ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা। ফোনটিতে এইচডি ডিসপ্লে ব্যবহার করা হয়েছে। ৪ জিবি র‍্যাম এবং ৬৪ জিবি ইন্টারনাল মেমোরি রয়েছে এই ফোনে। 

ওয়ান প্লাস ৩টি

ওয়ানপ্লাস ৩টি স্মার্টফোনটির দুটি অপশন রয়েছে একটি ৬৪ জিবি ও অপরটি ১২৮ জিবি। এই স্মার্টফোনের ফ্রন্ট ক্যামেরাটিতে মেজর আপগ্রেড করা হয়েছে। এ কারণে ১৬ মেগাপিক্সেল স্টিল ছবি ছাড়াও ৪কে ভিডিও রেকর্ডিং করা সম্ভব। 

এইচটিসি ১০

এইচটিসি ব্র্যান্ডের এই স্মার্টফোনটিতে ৫ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা। এছাড়া রয়েছে ১২ মেগাপিক্সেলের প্রাইমারি ক্যামেরা। ৪ জিবি র‍্যাম এবং ৩২ জিবি ইন্টারনাল মেমোরি রয়েছে এই ফোনে।  ব্যাটারি ব্যবহার করা হয়েছে ৩০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার।

সূত্র: ডিজিট.ইন

প্রিয় টেক/মিজান