(প্রিয়.কম) মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের নিয়ে বাংলাদেশ নজিরবিহীন সংকটে রয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ১৫ নভেম্বর বুধবার জাতীয় সংসদের অধিবেশনে মৌলভীবাজার-২ আসনের সংসদ সদস্য মো. আব্দুল মতিনের প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী তার লিখিত বক্তব্যে এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘লক্ষ লক্ষ অসহায় রোহিঙ্গাদের মানবিক সহায়তা এবং তাদের নিজ দেশে প্রত্যাবর্তন বিষয়ে বাংলাদেশ আজ এক নজিরবিহীন সংকটের মুখোমুখি। মনে রাখা প্রয়োজন রোহিঙ্গা সমস্যার মূল উৎপত্তি মিয়ানমারে এবং এর সমাধানও সে দেশকে করতে হবে।’

রোহিঙ্গা ইস্যুতে আন্তর্জাতিক মহলের সহযোগিতায় প্রতিকূলতা দূর হবে জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, ‘আমার দৃঢ় বিশ্বাস আন্তর্জাতিক মহলের সহযোগিতায় বিভিন্ন প্রতিকূলতার মাঝেও আমরা শান্তিপূর্ণ উপায়ে এ সমস্যার সমাধানে সফল হব।’

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, ‘বাংলাদেশের সময়োপযোগী পদক্ষেপ ও কর্মতৎপরতায় মিয়ানমারের জাতিগত নিধন বন্ধের দাবিটি আজ সার্বজনীন দাবিতে পরিণত হয়েছে।’

তবে এই বিপুল জনগোষ্ঠীকে বাংলাদেশে ‘দীর্ঘকাল’ রাখা সম্ভব নয় বলে জানান তিনি।

অন্য এক প্রশ্নের জবাবে জাতিসংঘের সর্বশেষ সাধারণ অধিবেশনে দেওয়া পাঁচ প্রস্তাবনায় রোহিঙ্গা সংকটের সমাধান নিহিত রয়েছে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘রোহিঙ্গা সমস্যার স্থায়ী সমাধানের লক্ষ্যে এ সময় আমি আমার ৫ দফা প্রস্তাবনা বাস্তবায়নে তার (জাতিসংঘ মহাসচিব) সহযোগিতা কামনা করি। এ সমস্যার উৎপত্তি মিয়ানমারে হওয়ায় মিয়ানমারকেই এ সমস্যার সমাধান খুঁজে বের করতে হবে। এ লক্ষ্যে অতিসত্ত্বর সকল জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুত মিয়ানমার নাগরিককে নিরাপদে ও সসম্মানে স্বদেশে ফিরিয়ে নেওয়ার ব্যবস্থা করতে হবে বলে আমি তাকে (জাতিসংঘ মহাসচিব) দৃঢ়ভাবে জানাই।’

রোহিঙ্গাদের জন্য নেওয়া সরকারের পদক্ষেপ সম্পর্কে জানতে চান লক্ষ্মীপুর-৪ আসনের সাংসদ মো. আবদুল্লাহ। এ বিষয়ে শেখ হাসিনা জানান, তিন হাজার ৫০০ একর জমি রোহিঙ্গাদের আবাসনের জন্য বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। এক লাখ ৩৪ হাজার পরিবারের জন্য অস্থায়ী আশ্রয়কেন্দ্র করা হয়েছে। চার হাজার ১৮২টি নলকূপ এবং ২১ হাজার ২২৪টি স্বাস্থ্যসম্মত ল্যাট্রিন স্থাপন হয়েছে। এ ছাড়া ৩৬টি মেডিকেল ক্যাম্প, ১২টি মাতৃ ও শিশু স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্র এবং ৬০ শয্যার একটি বিশেষায়িত হাসপাতাল নির্মাণ করা হয়েছে ।

প্রসঙ্গত, গত ২৫ আগস্ট মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গা নিধন অভিযান শুরুর পর প্রাণ বাঁচাতে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের সংখ্যা ইতোমধ্যে ৬ লাখ ৫০ হাজার ছাড়িয়ে গেছে বলে জানিয়েছে জাতিসংঘ। সম্প্রতি ও এর আগে বিভিন্ন সময়ে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গার সংখ্যা প্রায় ১০ লাখ বলে জানা গেছে।

প্রিয় সংবাদ/শান্ত