(প্রিয়.কম) জর্জ আর আর মার্টিনের লেখা বই “আ সং অফ আইস অ্যান্ড ফায়ার” থেকেই চলছে গেম অফ থ্রোনস সিরিজটি। আপনি যদি তার ফ্যান হয়ে থাকেন এবং তার আগামী বইয়ের অপেক্ষায় বিরক্ত হয়ে থাকেন, তাহলে আপনার জন্য রয়েছে একটি অদ্ভুত খবর। আগামী বইটির জন্য আপনাকে আর অপেক্ষা করতে হবে না, কারণ বইটি লিখে ফেলেছে একটি আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স (এআই)।

জ্যাক টাউট একজন সফটওয়্যার এঞ্জিনিয়ার যার তৈরি আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স (এআই) নিজেই এই বইটি লেখার চেষ্টা করে। রিকারেন্ট নিউরাল নেটওয়ার্ক (RNN) হিসেবে পরিচিত এই এআই প্রথম পাঁচটি বইয়ের ৫,৩৭৬টি পৃষ্ঠা পড়ে এবং ছয় নম্বর বইটি লেখা শুরু করে।

তার এই প্রচেষ্টার ফলাফল ব্যাকরণগতভাবে সঠিক না হলেও মজাদার বটে। টাউট প্রতি অধ্যায় শুরুর জন্য একটি বিশেষ শব্দ দেন এই RNN কে। এরপর কত শব্দ লিখতে হবে সেটা বলে দেন। এরপরের পুরো কাজটাই করে এই এআই। তার লেখা বইটি আপনি পড়তে পারেন গিটহাব নামের একটি সাইটে।

বইটি শুরু হয় এভাবে “Tyrion could hear Lord Aemon's coughing,” এরপর বলে,“I miss for it. Why did you proper?

এভাবে চলতে থাকে গল্পটা। এক পর্যায়ে সে নিজের তৈরি একটি চরিত্রকে নিয়ে আসে, যার নাম ‘গ্রিনবিয়ার্ড’। বলে, জেমি ল্যানিস্টার নাকি তার বোন সার্সিকে খুন করবে, এবং ড্রাগন কুইন ড্যানেরিসকে বিষ খাওয়াবে তার পরামর্শদাতা ভ্যারিস।

আসল লেখকের বইটি অবশ্যই এর চাইতে একেবারেই আলাদা হবে। কিন্তু এই এআইএর লেখক হবার প্রচেষ্টা অনেকটাই মজার। সে যেভাবে মার্টিনের লেখার ধরণ অনুকরণ করার চেষ্টা করে তা সহজ নয় মোটেই।

এই এআই তৈরি করেছেন টাউট, এবং তিনি নিজেই বলেন যে এই সিরিজ যদি আরো বড় হতো, তাহলে তার RNN বেশি ভালো কাজ করতে পারত। আর এই বইগুলোর ভাষা আরো সহজ হলে তা এআইএর জন্য সুবিধাজনক হত। আগের বইগুলোতে কোন কোন চরিত্র মারা গেছে, সেটা মনে রাখতেও অবশ্য সমস্যা হচ্ছে এর।

“মার্টিন অবশ্যই নিজের লেখায় প্রচুর বর্ণনা ব্যবহার করেন, তাই এসব অতিরিক্ত বিশেষণ, কাল্পনিক জায়গা এবং নাম আসলেই এই নেটওয়ার্কের জন্য ঝামেলা তৈরি করে,” বলেন টাউট।

গেম অফ থ্রোনস নিয়ে যে এই একটি এআই কাজ করছে, তাই নয় কিন্তু। Inverse নামের একটি ওয়েবসাইট মানুষের থেকে জানতে চাইছে শেষ সিজনে কী হতে পারে, সে মতামত। Unanimous AI নামের একটি ফার্মের সাথে তারা কাজ করবে এবং এসব মতামত থেকে বের করার চেষ্টা করবে আসলেই কী ঘটতে পারে ভবিষ্যতে।

সূত্র: IFLScience, Github

সম্পাদনা : রুমানা বৈশাখী