(প্রিয়.কম) গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলায় পূর্বশক্রতার জের ধরে আল আমিন (৬) নামে এক শিশুকে গলায় রশি পেঁচিয়ে হত্যা করে লাশ ড্রেনে ফেলে দিয়েছে প্রতিপক্ষের লোকজন। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে দুই নারীসহ তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ।

নিখোঁজের ৭২ ঘণ্টা পর ১৪ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলার তেলিরচালা এলাকার একটি ড্রেন থেকে আল আমিনের মরদেহ উদ্ধার করে গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ।

আটককৃতরা হলেন- কিশোরগঞ্জের করিমগঞ্জ থানার হাত্রাপাড়া এলাকার আব্বাস আলীর ছেলে জয়নাল আবেদীন (১৯), জয়নালের মা নুরেছা বেগম (৪০) ও বোন নিশিতা আক্তার (২১)।

কালিয়াকৈর থানাধীন মৌচাক ফাঁড়ির ‍উপপরিদর্শক (এসআই) সাইফুল আলম জানান, গত মঙ্গলবার নিখোঁজ হয় তেলিরচালা এলাকার জুয়েল হোসেনের ছেলে আল আমিন। এ ঘটনায় জুয়েল হোসেন কালিয়াকৈর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগ দায়েরের পরে কিশোরগঞ্জের করিমগঞ্জ থানার হাত্রাপাড়া এলাকার আব্বাস আলীর ছেলে জয়নাল আবেদীনকে আটক করে পুলিশ। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জয়নাল জানায়, পূর্বশক্রতার জের ধরে আল আমিনের গলায় রশি পেঁচিয়ে হত্যা করে লাশ ড্রেনের মধ্যে ডুবিয়ে রেখেছেন। 

জয়নালের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী নিখোঁজের ৭২ ঘণ্টা পর তেলিরচালা এলাকার একটি ড্রেন থেকে ওই শিশুর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মরদেহটি গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় জয়নালের মা-বোনকেও আটক করা হয়েছে।

প্রিয় সংবাদ/কামরুল